মেয়র আরিফকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ফরম কিনলেন সেলিম

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৪:২৬ পিএম, ২৪ জুন ২০১৮

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদ অবশেষে মনোনয়ন ফরম ক্রয় করলেন সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম।

বর্তমান মেয়র বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরীকে চ্যালেঞ্জ দিয়েই রোববার দুপুরে সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয় থেকে দলের কয়েকজন নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি ফরম সংগ্রহ করেন। এরপর তিনি বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম এ হকের বাসায় গিয়ে দুআ নেন।

বদরুজ্জামান সেলিম জানান, আরিফুল হক দলের কোনো প্রার্থী নয়। তিনি মিডিয়ার প্রার্থী। কেন্দ্রীয় বিএনপির কাছে ইতোমধ্যে আরিফের দলীয় অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে। নেতৃবৃন্দ এখনও আরিফের সার্বিক বিষয় যাচাই-বাছাই করছেন। তাকে এখনও দল থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়নি। আমি শতভাগ আশাবাদি দল এবার আমাকে মূল্যায়ন করবে।

সেলিম আরও জানান, গাজীপুরের নির্বাচনের ওপর নির্ভর করছে বিএনপির সিলেট মেয়র প্রার্থীতা ঘোষণা। যতটুকু জেনেছি এই নির্বাচনের পর সিলেট মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে।

আরিফুল হককে যদি দল থেকে মনোনয়ন দেয়া হলে নির্বাচনে অংশ নেবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আরিফকে দল থেকে মনোয়ন দেয়া হবে না। ইতোমধ্যে দল থেকে আমাকে সবুজ সংকেত দেয়া হয়েছে। সেই সংকেতের ভিত্তিতেই আমি মেয়র প্রার্থীর ফরম নিয়েছি।

jagonews24

সিসিক নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন লড়াইয়ে রয়েছেন বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল কাইয়ুম জালালী পংকী, সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, সহসভাপতি রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, যুবদল কর্মী ছালাহউদ্দিন রিমন।

দলীয় মনোনয়ন ঠেকাতে মেয়র আরিফের বিরুদ্ধে সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাছিম হোসেইন ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম স্বাক্ষরিত ৫ পৃষ্ঠার অভিযোগ পাঠানো হয় দলের হাইকমান্ডের কাছে। সিলেট মহানগর বিএনপির প্যাডে লেখা চিঠিতে আরিফুল হকের বিরুদ্ধে ১১টি অভিযোগ তোলা হয়।

অভিযোগের বিষয়ে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, সিলেটে ধর্মীয় সম্প্রীতির পাশাপাশি রাজনৈতিক সম্প্রীতি দীর্ঘদিনের। দলীয় নেতাকর্মী ও নাগরিকরা এ সম্প্রীতিকে সব সময়ই স্বাগত জানান। যে কিছু নেতার গাত্রদাহের কারণ হয়।

আরিফ বলেন, বিএনপির সব কর্মসূচিতে তিনি অগ্রভাগে ছিলেন। নগরের উন্নয়নের স্বার্থে সঙ্গত কারণেই অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখতে হয়েছে।

ছামির মাহমুদ/আরএ/আরআইপি