রংপুরে পুলিশ-বিক্ষোভকারী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৩:৪৭ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৮ | আপডেট: ০৩:৫৮ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৮

রংপুর মহানগরীর দর্শনায় বাসচাপায় জিয়ন নামে এক স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনায় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ১০-১২টি গাড়ি ভাঙচুর করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি, টিয়ার শেল ছোড়ে এবং লাঠিচার্জ করে। এতে পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। প্রায় ৩ ঘণ্টা পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের শুঁটকি আড়তের সামনে বাসচাপায় জিয়ন নিহত হলে প্রতিবাদে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে স্থানীয়রা। এ সময় জিয়নের মরদেহ নিতে আসা অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করেন বিক্ষুব্ধরা।

নিহত জিয়ন বদরগঞ্জের লোহানীপাড়া ইউনিয়নের মন্ডলের হাট গ্রামের লোহানীপাড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাহিদুল ইসলামের ছেলে এবং নগরীর কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

Rangpur

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, জিয়ন দর্শনার ঘাঘটপাড়া এলাকার মেঘলা ছাত্রাবাসে থেকে পড়াশোনা করতো। সকালে বাইসাইকেল নিয়ে ওই সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় গাইবান্ধা থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী একটি বাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় জিয়ন।

দুর্ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়লে আশপাশের লোকজন মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। ফলে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ লোকজন ১০-১২টি গাড়ি ভাঙচুর করে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ এক রাউন্ড গুলি, দুই রাউন্ড টিয়ার শেল ও লাঠিচার্জ করলে বিক্ষোকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। বিকেল ৩টার দিকে ওই এলাকায় যান চলাচল শুরু হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল-এ) সাইফুর রহমান বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। যান চলাচল স্বাভাবিক। ঘটনাস্থল থেকে নিহত জিয়নের মরদেহ উদ্ধারের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জিতু কবীর/এএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :