সিলেট-৬ আসনে জামায়াতকে ‘না’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:১৩ এএম, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ আসনটি জামায়াতে ইসলামীকে না ছেড়ে যেকোনো বিএনপি নেতাকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারের ১১ ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যানরা।

এই আসনটি বিএনপি জামায়াতে ইসলামীকে ছেড়ে দিতে পারে এমন আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরের একটি রেস্তরাঁয় সংবাদ সম্মেলন করে এমন দাবি জানান তারা।

গত কয়েকদিন ধরেই গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হচ্ছে, এই আসনটি জামায়াতে ইসলামীকে ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপির হাইকমান্ড। জামায়াতে ইসলামীর মাওলানা হাবিবুর রহমান এ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হচ্ছেন বলেও গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

এ অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যায় আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এই আসনের বিএনপি দলীয় জনপ্রতিনিধিরা বলেন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার হচ্ছে বিএনপির ঘাঁটি। এই দুই উপজেলার ২১ ইউনিয়নের মধ্যে ১১টি ইউনিয়নেই দায়িত্ব পালন করছেন বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যানরা। আর এ জন্যই এই আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর বিজয় সুনিশ্চিত।

দুই উপজেলার চেয়ারম্যানদের উপস্থিতিতে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিয়ানীবাজার উপজেলার ১ নম্বর আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মামুনুর রশীদ মামুন। এ সময় উপস্থিত চেয়ারম্যান এবং বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতারাও এই দাবির সঙ্গে সহমত পোষণ করেন।

লিখিত বক্তব্যে বিএনপি নেতা মামুনুর রশীদ মামুন বলেন, বিএনপি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং ২০ দলীয় জোটের দায়িত্বশীল নেতাদের কাছে আহ্ববান জানাচ্ছি নির্বাচনে অংশগ্রহণকে সার্থক করে তোলার জন্য, এলাকার জনগণের স্বার্থে এবং বিএনপিকে রক্ষার জন্য সিলেট-৬ আসনে বিএনপি দলীয় প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হোক। তা না হলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আন্দোলন শুধু বাধাগ্রস্তই হবে না, ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ব্যর্থতায় পর্যবসিত হবে।

এ দাবির সঙ্গে সমর্থন জানিয়েছেন গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষণাবন্ধ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নছিরুল হক শাহীন, ভাদেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিলাল উদ্দিন এবং তিলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুব আহমদ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন কুড়ারবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এএফএম আবু তাহের, গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নোমান উদ্দিন মুরাদ, গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ চৌধুরী, পশ্চিম আমুড়া ইউপি চেয়ারম্যান রুহেল আহমদ, প্যানেল চেয়ারম্যান (২) আবদুল গফফার কুটি, লক্ষণাবন্দ ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রাজু আহমদ ও শরীফগঞ্জ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান এমএ মুছব্বির প্রমুখ।

ছামির মাহমুদ/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :