এএসপির গাড়িতে বোমা হামলা, গুলিবিদ্ধ যুবক আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা
প্রকাশিত: ১২:৫৮ এএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮
হামলার বর্ণনা দিচ্ছেন সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল

চুয়াডাঙ্গায় সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবু রাসেলের গাড়িতে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাত ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-জীবননগর সড়কের দর্শনা ফিলিং স্টেশনের সামনে এ বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার পর পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের গুলিতে আহত হন টিটু নামে এক যুবক। পরে তাকে পুলিশ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করে। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

পুলিশ জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গার উথলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়। সড়ক দুর্ঘটনার স্থান পরিদর্শন শেষে চুয়াডাঙ্গায় ফিরছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেলসহ চার কনস্টেবল।

police

হামলার বর্ণনা দিচ্ছেন সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল

সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল জানান, রাত ৯টার দিকে জীবননগর -চুয়াডাঙ্গা সড়কের দর্শনা ফিলিং স্টেশনের কাছে পৌঁছালে মোটরসাইকেল আরোহী দুইজন আমার গাড়ি লক্ষ করে বোমা ছুড়ে মারে। নিক্ষিপ্ত বোমাটি বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়ে গাড়ির ডান দিকের গ্লাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ সময় পুলিশ হামলাকারীদের ধাওয়া করলে তারা পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশ গুলি ছুড়লে পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে টিটু নামে এক যুবক আটক হন। আটক টিটু দামুড়হুদা দর্শনা ইসলাম বাজারের মৃত মোজাহিদ আলীর ছেলে।

রাতেই চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান তাৎক্ষণিক এক প্রেস বিফ্রিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে বড় ধরনের অঘটন ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল হামলাকারীদের। তবে অল্পের জন্য পুলিশের সবাই প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন।

এদিকে, আটক যুবক টিটুকে উদ্ধার করে রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আওলিয়ার রহমান জানান, গুলিতে তার ডান পা ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে। এ ছাড়া তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাতেই তাকে ঢাকাতে রেফার্ড করা হয়েছে।

সালাউদ্দিন কাজল/জেডএ