১০ লাখ টাকার সরকারি গাছ কেটে নিলেন সরকারি কর্মচারী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৬:৪২ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) সরকারি গাছ কেটে নিয়েছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আনোয়ার হোসেন দুলাল।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার পূর্ব রাকুদিয়া গ্রামের পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) স্লুইসগেট সংলগ্ন ১০ লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রজাতির সরকারি গাছ কেটে নিয়েছেন সরকারি কর্মচারী আনোয়ার হোসেন দুলাল ও তার ছেলে।

রোববার দুপুরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের ফেরি ডিভিশনের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আনোয়ার হোসেন দুলালের রাকুদিয়া গ্রামের বড়ির সামনে গিয়ে দেখা যায়, বিশাল দুটি রেইনট্রি গাছ পড়ে আছে।

শনিবার উপজেলার দেহেরগতি ইউনিয়নের পূর্ব রাকুদিয়া গ্রামের পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৮নং স্লুইসগেট সংলগ্ন এলাকা থেকে এ দুটি রেইনট্রি গাছ কেটে ফেলেন সওজের কর্মচারী আনোয়ার হোসেন দুলাল, তার ছেলে তুহিন হাওলাদার ও ভাই জাহাঙ্গীর হাওলাদার। এ বিষয়ে স্থানীয়রা ইউপি সদস্যের কাছে অভিযোগ দিলেও কোনো কাজ হয়নি।

দেহেরগতি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য আনোয়ার হোসেন বলেন, স্থানীয়দের অভিযোগ পেয়ে সওজের কর্মচারী দুলালকে গাছ কাটতে নিষেধ করা হলেও শোনেননি; উল্টো আমাকে গালাগাল করেছেন। এ পর্যন্ত ১০ লাখ টাকার সরকারি গাছ কেটে বিক্রি করেছেন দুলাল।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সড়ক ও জনপথ বিভাগের ফেরি ডিভিশনের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আনোয়ার হোসেন দুলালের ব্যবহৃত মোবাইলে অসংখ্যবার কল দিলেও রিসিভ করেননি।

তবে তার ছেলে তুহিন হাওলাদার বলেন, সরকারি গাছ তো অনেকেই কেটে নিয়ে যায়। তাই আমরাও কেটেছি। সরকারি গাছ কাটলে আপনাদের সমস্যা কি?।

এ বিষয়ে বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. রাসেল বলেন, বাবুগঞ্জের পূর্ব রাকুদিয়া গ্রামের স্লুইসগেট সংলগ্ন পাউবোর সম্পত্তির গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পেয়েছি। পাউবোর লোকবল সংকটের কারণে সঠিক সময়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের অভাবে সরকারি গাছগুলো রক্ষা করা যাচ্ছে না। তবে এবার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

সাইফ আমীন/এএম/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :