সাতকানিয়ায় অপহৃত কিশোর লোহাগাড়ায় উদ্ধার, গ্রেফতার এক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০১:৩১ এএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৯

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার ঠাকুরদীঘি এলাকা থেকে চারদিন আগে অপহৃত কিশোর সাদেক ছোবাহান সাকিবকে (১৭) লোহাগাড়ার একটি আবাসিক হোটেল থেকে উদ্ধার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় মো. হোসেন (৩০) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধার করা হয় চেতনানাশক ওষুধ ও অস্ত্র।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) ভোরে লোহাগাড়া উপজেলার বটতলী বাজার এলাকার এমকে বোর্ডিং নামের একটি আবাসিক হোটেল থেকে সাকিবকে উদ্ধার করা হয়। তবে অপহরণের ‘মূলহোতা’ সাকিবের খালাত ভাই জাহাঙ্গীর আলম ওরফে জয় পালিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে গণমাধ্যমকে এসব কথা জানান নগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (পশ্চিম) মঈনুল ইসলাম।

তিনি জানান, গত ১০ জানুয়ারি সকালে সাতকানিয়া করাইয়ানগরের বাড়ি থেকে চন্দনাইশের বিজিসি ট্রাস্ট কলেজে যাচ্ছিল কিশোর সাকিব। পথে ঠাকুরদীঘি এলাকায় তার খালাত ভাই জাহাঙ্গীর আলম ওরফে জয় সাকিবকে গাড়িতে উঠিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে তার বাবার কাছ থেকে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এ ঘটনায় সাতকানিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন সাকিবের বাবা ফৌজুল কবীর।

মঈনুল সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঘটনাটি সাতকানিয়া এলাকায় ঘটলেও যে মোবাইল থেকে মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছে সেটির অবস্থান চট্টগ্রাম নগরের হালিশহর এলাকায় শনাক্ত করা হয়। পরে প্রযুক্তির সহায়তায় সাতাকানিয়া, লোহাগাড়াসহ বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় টানা ২১ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে সোমবার ভোরে লোহাগাড়ার বটতলী এমকে শপিং সেন্টারের দ্বিতীয় তলায় এমকে বোর্ডিংয়ের ৩০৪ নম্বর রুম থেকে সাকিবকে উদ্ধার করা হয়।’

তিনি আরও জানান, সাকিবকে অপহরণ করার পর প্রথমে লোহাগাড়ার দুর্গম এলাকা নাখালদিয়ার একটি মাছের প্রজেক্টে নিয়ে রাখে। সেখান থেকে কয়েকটি স্থানে ঘুরিয়ে হোটলেটিতে এনে রাখে। সাকিবের বাবা থেকে ৫০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে এ অপহরণের কাণ্ড ঘটায় জয়।

আবু আজাদ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :