মাঠে ফেলে ছাত্রীকে গণধর্ষণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৭:৩১ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় মিলন মোল্লা (২৬) নামে এক ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গণধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থী রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শুক্রবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। রোববার সকালে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করেন। মামলায় খানগঞ্জ ইউনিয়নের মিলন মোল্লা (২৬) ও রেজাউল প্রামাণিক (২৭) নামে দুই ধর্ষককে আসামি করা হয়।

ধর্ষক মিলন মোল্লা রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের চর শিবরামপুরের আফজাল মোল্লার ছেলে এবং রেজাউল প্রামাণিক একই ইউনিয়নের কান্তনগর এলাকার আয়নাল প্রামাণিকের ছেলে।

মামলার ওই ছাত্রীর বাবা উল্লেখ করেন, শুক্রবার বিকেলে তার মেয়ে (১১) বাড়ির পাশের মাঠে একটি ভুট্টাক্ষেতে ঘোড়ার জন্য ঘাস কাটতে যায়।

এ সময় মিলন ও রেজাউল ভুট্টাক্ষেতের মধ্যে তার মেয়েকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষকরা মেয়েকে ভয়ভীতি দেখায়। ভয়ে কাউকে কিছু জানায়নি মেয়ে।

শনিবার সকালে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন মেয়ের মা অসুস্থতার কারণ জানতে চাইলে ধর্ষণের কথা জানায়। পরে মেয়েকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশের ওসি স্বপন কমুার মজুমদার বলেন, পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। দুই ধর্ষকের নাম বলেছে মেয়েটি। এর মধ্যে এক ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা আলী আহসান তুহিন বলেন, ছাত্রীকে ধর্ষণের বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠিয়েছি আমরা। প্রতিবেদন হাতে পেলে বিষয়টি সঠিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে গোসল করায় ও কাপড় পরিবর্তন করায় প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

রুবেলুর রহমান/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :