সেই ১৩ শ্রমিকের পরিবার পেল ১৪ লাখ টাকা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় একটি ইটভাটায় কয়লাবোঝাই ট্রাক উল্টে ১৩ জন ঘুমন্ত শ্রমিক নিহত ও দুই শ্রমিক আহতের ঘটনার ১৭ দিন পর তাদের পরিবারের জন্য আর্থিক সহায়তা হিসেবে ১৪ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শেখ শহীদুল ইসলাম সোমবার দুপুরে নীলফামারী জেলা প্রশাসকের ব্যাংক হিসাবে এসব টাকা পাঠান।

গত ২৫ জানুয়ারি ভোরে জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার নারায়ণপুর এলাকায় কাজী অ্যান্ড কোং নামে একটি ইটভাটায় কয়লাবাহী ট্রাক উল্টে শ্রমিকদের ঘুমানোর শেডে পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলে ১২ জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর আরও একজনসহ ১৩ শ্রমিক নিহত হয়। এ দুর্ঘটনায় আহত হন আরও দুই শ্রমিক। হতাহতদের প্রত্যেকের বাড়ি নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায়।

সোমবার ইটভাটার মালিক আ. রাজ্জাক মজুমদার এ ঘটনায় নিহত ও আহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা হিসেবে ১৪ লাখ টাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে জমা দেন। এ সময় চৌদ্দগ্রামের ঘোলপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু জাফর আহমেদসহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শেখ শহিদুল ইসলাম বলেন, ইটভাটার মালিক আ. রাজ্জাক মজুমদার তার ইটভাটায় দুর্ঘটনায় নিহত শ্রমিকদের প্রতি পরিবারকে এক লাখ টাকা এবং আহত দুই শ্রমিককে ৫০ হাজার টাকা করে মোট ১৪ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন। কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীরের নির্দেশে ওসব টাকা হতাহতদের পরিবারের কাছে হস্তান্তরের জন্য নীলফামারীর জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আলোচনা করে তার ব্যাংক হিসাবে পাঠানো হয়েছে।

মো. কামাল উদ্দিন/এএম/পিআর