মসজিদ কমিটি নিয়ে রণক্ষেত্র নারায়ণগঞ্জ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ১০:৫৯ এএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নারায়ণগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সাবেক ও বর্তমান দুই কাউন্সিলর বাহিনীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে স্থানীয়রা বলছেন মসজিদ কমিটি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’গ্রুপের এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর কবীর হোসেনসহ উভয় গ্রুপের অন্তত ১২-১৫ জন আহত হয়েছেন।

রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা থেকে শুরু করে দেড়টা পর্যন্ত থেমে থেমে কয়েক দফা এই সংঘর্ষ হয়। আহত অন্যান্যদের মধ্যে তাৎক্ষণিক নেয়ামত উল্লাহ, সুজন, সত্যজিৎ ও দূর্জয়ের নাম জানা গেছে। তাদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ১৮নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর কামরুল ইসলাম মুন্না ও বর্তমান কাউন্সিলর কবির হোসেন গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। নিতাইগঞ্জ এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শহরের নিতাইগঞ্জের দক্ষিণ নলুয়া জামে মসজিদের কমিটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বর্তমান কাউন্সিলর কবীর হোসেন ও সাবেক কাউন্সিলর কামরুল ইসলাম মুন্নার মধ্যে বিরোধ চলছিলো। সেই সূত্র ধরে রোববার রাতে কবিরের ভাগিনা টিটুকে মারধর করে মসজিদ থেকে বের করে দেয় মুন্নাপন্থী লোকজন। এ ঘটনায় একপক্ষ সদর থানায় রাতেই অভিযোগ জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই উভয় গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সংঘর্ষ চলাকালে উভয় গ্রুপের লোকজনই আগ্নেয়াস্ত্রসহ ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একে অপরের উপর হামলা চালায়। এ সময় উভয় গ্রুপের লোকজনের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। আর সংঘর্ষ চলাকালে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দ শোনা যায়। এতে চারদিকে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের ওসি কামরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মসজিদ কমিটি নিয়ে বিরোধ থেকে সাবেক ও বর্তমান দুই কাউন্সিলর গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

শাহাদাত হোসেন/এফএ/এমকেএইচ