প্যান্ট খুলে দেয়ার প্রতিবাদ করায় শিশুকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৩:০০ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
প্রতিকী ছবি

বিবস্ত্র করার প্রতিবাদ কারায় প্রতিবেশীর হামলায় আহত সৌরভ মন্ডল (১০) ঢাকার একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর ধানমন্ডি জেনারেল অ্যান্ড কিডনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শনিবার সকালে এ ঘটনায় নিহত সৌরভ মন্ডলের বাবা গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ মাগুরা গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর কার্তিক মন্ডল বাদী হয়ে অভিযুক্ত ২ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

আসামিরা হলেন, একই এলাকার মোস্তফা মোল্লার ছেলে বেল্লাল মোল্লা (৩৫) ও মো. শাহ আলম মাতুব্বরের ছেলে মো. ফারুক মাতুব্বর (৩২)।

গৌরনদী থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই মো. তৌহিদুজ্জামান মামলার এজহারের বরাত দিয়ে জানান, কার্তিক মন্ডল ও বেল্লাল মোল্লা এবং ফারুক মাতুব্বর প্রতিবেশী। গত ১৫ ফ্রেব্রুয়ারি বিকেলে স্থানীয় বাদল সন্যামতের পুকুরে মাছ ধরা হচ্ছিল। পুকুরের পাশে দাঁড়িয়ে মাছ ধরা দেখছিল সৌরভ।

এ সময় বেল্লাল ও ফারুক সৌরভকে নিয়ে হাসি তামাশা করছিল। এক পর্যায়ে তারা সৌরভের প্যান্ট খুলে বিবস্ত্র করে অশালীন মন্তব্য করে। সৌরভ এর প্রতিবাদ করলে বেল্লাল ও ফারুক তাকে মারধর করে। কিল ঘুষি মারতে থাকে সৌরভকে।

এক পর্যায়ে সৌরভকে লাথি দিয়ে ইরি-বোরো ব্লকের ড্রেনের ভেতর ফেলে দেয়। সৌরভ সেখানেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে ছিল। খবর পেয়ে বাড়ির লোকজনে মুমূর্ষু অবস্থায় সৌরভকে উদ্ধার করে প্রথমে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরবর্তীতে চিকিৎসকদের পরামর্শে সৌরভকে ধানমন্ডি জেনারেল অ্যান্ড কিডনি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত ১১টার দিকে সৌরভের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে সৌরভের বাবা কার্তিক মন্ডল বাদী হয়ে মামলা করেন। সৌরভ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ মাগুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

গৌরনদী থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই মো. তৌহিদুজ্জামান বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আসামিদের বাড়ি ও আশপাশের এলাকায় অভিযান চালানো হচ্ছে।

সাইফ আমীন/এফএ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :