নোয়াখালীতে আরও দু’জনের দাফন সম্পন্ন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৮:৩০ এএম, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

চকবাজার ট্র্যাজেডিতে নিহত হায়দার মেডিকেলের মালিক আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর মরদেহ গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার নাটেশ্বর ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামে শনিবার বাদ মাগরিব জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এর আগে বিকেলে তার মরদেহ গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছলে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। এ সময় নাটেশ্বর গ্রামের মানুষ, মঞ্জুর আত্মীয় স্বজন ও বন্ধুরা ভিড় করেন। দুই সন্তানের জনক আনোয়ার হোসেন মঞ্জুসহ তার আরো এক ভাই চকবাজারের হায়দার মেডিকেল পরিচালনা করতেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, ঘটনার দিন মঞ্জুর দোকানে আরও তিন বন্ধু নাছির উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন হীরা ও আনোয়ার হোসেন আড্ডা দেয়া অবস্থায় আগুনের সূত্রপাত ঘটলে দোকানের সাটার বন্ধ করে দেন তারা। কিন্তু তাতেও রক্ষা মেলেনি। আগুনে দগ্ধ হয়ে তারা মৃত্যুবরণ করেন।

তিন জনের মরদেহ শনাক্ত করে শুক্রবার সকালে নাটেশ্বর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে দাফন করা হলেও শুক্রবার রাতে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলের মর্গে থাকা মঞ্জুর মরদেহ তার পরিবার শনাক্ত করে।

এদিকে ওই ঘটনায় নিহত আরও একজন বটতলী গ্রামের সোলেমানের ছেলে জাফর হোসেনের মরদেহ হাসপাতাল মর্গ থেকে তার পরিবারের লোকজন শনাক্ত করেন। পরে গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়।

প্রসঙ্গত, চকবাজার ট্র্যাজেডিতে এ পর্যন্ত পরিচয় পাওয়া নোয়াখালীর এক নারীসহ ১৫ জনের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- সোনাইমুড়ীর নাটেশ্বর ইউনিয়নের ঘোষকামতা গ্রামের খাসের বাড়ির সাহেব আলীর দুই ছেলে মাসুদ রানা (৩৬) ও মাহাবুবুর রহমান রাজু (২৮), পশ্চিম নাটেশ্বর গ্রামের মিনহাজী বাড়ির মৃত ভুলু মিয়ার ছেলে মোহাম্মদ আলী হোসেন (৬৫), নাটেশ্বর গ্রামের সৈয়দ আহমদের ছেলে হেলাল উদ্দিন, মির্জা নগর গ্রামের আবদুর রহিম বিএসসির ছেলে আনোয়ার হোসেন মঞ্জু (৩৮), মমিন উল্যার ছেলে সাহাদাত হোসেন হিরা (৩২), মৃত গাউছ আলমের ছেলে নাছির উদ্দিন (৩২), সোলেমানের ছেলে জাফর হোসেন, মধ্য নাটেশ্বর গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে ছিদ্দিক উল্যাহ, বজরা ইউনিয়নে আশেয়া আক্তার নয়ন, অম্বর নগর ইউনিয়নে আবদুর রহিম দুলাল ও পার্শ্ববর্তী বারোগা ইউনিয়নের দোলতপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আনোয়ার, বেগমগঞ্জের মুজাহিদপুর গ্রামের কামাল হোসেন, বেগমগঞ্জের অভিরামপুর গ্রামের মোশারফ হোসেন বাবু ও কোম্পানীগঞ্জের চর এলাাহির জসিম উদিন।

মিজানুর রহমান/এফএ/আরআইপি