উপজেলা নির্বাচন : রংপুরে আ.লীগ ৫, জাতীয় পার্টি ১

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ১২:৩৩ পিএম, ১৯ মার্চ ২০১৯

দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রংপুরের আট উপজেলার ছয়টিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ভোটে তিনটিতে এবং বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দুটি মিলে মোট পাঁচটিতে জয় পেয়েছে। এছাড়া জাতীয় পার্টি (এরশাদ) একটিতে জয় পেয়েছে।

সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বদরগঞ্জ উপজেলায় দ্বিতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফজলে রাব্বী সুইট ৫৮ হাজার ৩০১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক বিএনপি নেতা সাইদুল ইসলাম (মোটর সাইকেল) পেয়েছেন ছয় হাজার ৮০০ ভোট।

তারাগঞ্জে দ্বিতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আনিছুর রহমান লিটন ৪২ হাজার ৩৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহীনুর রহমান মার্শাল পেয়েছেন ১৮ হাজার ৯২২ ভোট।

পীরগঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ৭৩ হাজার ১৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোকাররম হোসেন চৌধুরী জাহাঙ্গীর পেয়েছেন ২৭ হাজার ৯০৯ ভোট।

উল্লেখ্য নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ২০১৪ সালে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে তিনি বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

এছাড়া পীরগাছা উপজেলায় জাতীয় পার্টির আবু নাসের শাহ মো. মাহবুবার রহমান ৫৫ হাজার ৮৬০ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলন পেয়েছেন ৪০ হাজার ৯৫৭ ভোট। শাহ মাহবুবার রহমান ২০০৮ সালে প্রথম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

অপরদিকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কাউনিয়া উপজেলায় আনোয়ারুল ইসলাম মায়া এবং গঙ্গাচড়ায় রুহুল আমিন নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বদরগঞ্জ উপজেলায় তাজুল ইসলাম, তারাগঞ্জে গোলাম ছাইদেল কাওনাইন, পীরগঞ্জে শফিউর রহমান মণ্ডল, পীরগাছায় আরিফুল হক লিটন, কাউনিয়ায় আব্দুর রাজ্জাক এবং গঙ্গাচড়ায় সাংবাদিক সাজু মিয়া লাল বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বদরগঞ্জে নাজমা জাহানুর, তারাগঞ্জে সাবিনা ইয়াসমিন, পীরগঞ্জে শিরিনা খাতুন, পীরগাছায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তানজিনা আফরোজ, কাউনিয়ায় আঙ্গুরা বেগম এবং গঙ্গাচড়া উপজেলায় রাবিয়া বেগম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, ছয় উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১৪, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৯ এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

রংপুরের বাকি দুই উপজেলা মিঠাপুকুর ও সদর উপজেলায় ২৪ মার্চ ততৃীয় ধাপে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জিতু কবীর/এএইচ/এমকেএইচ