সাতক্ষীরার জজের পরিচয়ে ভালুকায় বিয়ে করতে গিয়ে ধরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০১৯

ময়মনসিংহের ভালুকায় ভুয়া জজ সেজে বিয়ে করতে এসে রাশেদুল ইসলাম সোহাগ (৩০) নামে এক যুবক ধরা খেয়ে এখন কারাগারে। গতকাল শুক্রবার রাতে ভালুকা উপজেলার পাড়াগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার বেরারচালা গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে রাশেদুল ইসলাম সোহাগ তার বড় ভাই আসাদ ও ভাবিকে নিয়ে ঘটকের মাধ্যমে ভালুকা উপজেলার পাড়াগাঁও গ্রামের ছাইদুর রহমান রতনের মেয়ে রাবেয়া আক্তার শিফাকে (১৯) বিয়ে করার জন্য দেখতে আসেন। এ সময় রাশেদুল ইসলাম সোহাগ নিজেকে সাতক্ষীরার সহকারী জজ পরিচয় দেন। এতে কনেপক্ষের লোকজনের সন্দেহ হলে একই নামের সাতক্ষীরা জেলার সহকারী জজের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তার নম্বরে যোগযোগ করেন। এতে সোহাগ যে ভুয়া জজ তা বের হয়ে আসে। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ বাচ্চু ভালুকা মডেল থানায় খবর দিলে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানা পুলিশের এসআই জহুরুল হক বাদী হয়ে প্রতারণার অভিযোগে একটি মামলা করেন। শনিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

জানা যায়, রাশেদুল ইসলাম সোহাগ একইভাবে জজ পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গত বছর পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় এবং তার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়।

সোহাগের বড় ভাই আসাদ জানান, তার ভাই সোহাগ এলএলবি পাস করে গাজীপুর জজকোর্টে এক উকিলের জুনিয়র হিসেবে কাজ করছেন। বিয়ের জন্য ভালুকায় এসেছিল।

ভালুকা মডেল থানা পুলিশের ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, উপজেলার পাড়াগাঁও গ্রামে ভুয়া জজ সেজে বিয়ে করতে এসে আটক হওয়া ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এর আগেও এ ধরনের ঘটনায় কাপাসিয়া থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে।

এমএএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :