ফিরেই যেতে হচ্ছে সাদপন্থীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:২৮ এএম, ২৬ এপ্রিল ২০১৯

তিন দিনব্যাপী ইজতেমার আয়োজন করে প্রশাসনের অনুমতি না পাওয়ায় একদিনেই ফিরে যাচ্ছেন তাবলীগ জামাতের সাদপন্থী মুসল্লিরা। আজ শুক্রবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে মোনাজাতের মাধ্যমে আয়োজনের ইতি টানেন তারা।

এর আগে পূর্বঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বদিকোনার মাঠে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেন তারা।

জানা গেছে, দক্ষিণ সুরমার বদিকোনা মাঠে ২৫, ২৬ ও ২৭ এপ্রিল তিন দিনব্যাপী সিলেট জেলা ইজতেমার ঘোষণা দেন তাবলীগ জামাতের সাদপন্থীরা। তাদের এই ঘোষণায় ক্ষুব্দ হয়ে ওঠেন দেওবন্দি অনুসারী তাবলীগ জামাতের আলেম-ওলামারা। ইজতেমা বন্ধে জেলা প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি দেন তারা।

এছাড়া বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সভা করেন দেওবন্দিরা। এতে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ফলে ইজতেমা করার জন্য লিখিত অনুমতি দেয়নি জেলা প্রশাসন।

Ijtema1

অপরদিকে নিরাপত্তার স্বার্থে ইজতেমা না করতে নির্দেশ দেয় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, প্যান্ডেল তৈরি করে বদিকোনা মাঠে জেলা ইজতেমার আয়োজন করেছেন তাবলিগ জামাতের সাদপন্থীরা। ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতার মতো প্যান্ডেলে অবস্থান নিয়ে আম বয়ানও শুরু করেছেন তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীরা।

এ সময় পুলিশ তাদের বাধা দিলে তারা একরাত অবস্থানের জন্য পুলিশের কাছ থেকে মৌখিক অনুমোদন নেন। শুক্রবার সকালে তারা চলে যাবেন বলেও জানান।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল বলেন, শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলাসহ সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ২৫, ২৬ ও ২৭ এপ্রিলের ইজতেমা করার অনুমতি দেয়নি সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ। তবে বদিকোনায় কোনো ইজতমা হচ্ছে না। শুধু একরাতের জন্য শবগুজারীর অনুমতি দেয়া হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা বলেন, এক পক্ষের বাধাসহ সার্বিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে পুলিশের পক্ষ থেকে সিলেট জেলা ইজতেমা করার অনুমতি দেয়া হয়নি।

ছামির মাহমুদ/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]