সিলেটে ওয়েলফুড ও মধুবনকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০১:১৭ এএম, ২৩ মে ২০১৯

সিলেট বিভাগীয় কার্যালয় ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভেজালবিরোধী অভিযান অব্যাহত রয়েছে। বুধবার পৃথক অভিযান পরিচালনা করে ওয়েলফুড ও মধুবনসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বুধবার দুপুর ১২টায় শহরতলীর খাদিমপাড়া ও বিসিক শিল্প এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ হেলাল চৌধুরী অভিযান চালান। এ সময় লাইসেন্স না থাকায় মেসার্স লুৎফা ব্রিক ফিল্ডকে আড়াই লাখ টাকা ও বিভিন্ন অপরাধে মেসার্স নিশিতা ফুডসকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সিলেট জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ হেলাল চৌধুরীর এ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ অধিদফতরের সহকারী কেমিস্ট সানোয়ার হোসেন, বিএসটিআই কর্মকর্তা রফিকুল হাসান রিপন, মহানগর পুলিশের এসআই আব্দুল গাফফার ও হুমায়ুন রশীদ।

এছাড়া পৃথক আরেকটি অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনা আক্তার। নগরের গোটাটিকরের বিসিক শিল্প নগরীতে ওয়েলফুডের কারখানায় মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরির অভিযোগে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনা আক্তার জানান, নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি ও মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই সংরক্ষণ ও হাইকোর্ট ঘোষিত মানহীন একটি পণ্য পাওয়ায় ওয়েলফুডকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে প্রায় চারশ কেজি সেমাই পুড়িয়ে ফেলা হয়।

এদিকে সিলেট বিভাগীয় কার্যালয় কর্তৃক ভোক্তা অধিকারবিরোধী কার্য প্রতিরোধ ও হাইকোর্ট কর্তৃক নিষিদ্ধ ৫২টি পণ্য বাজার থেকে অপসারণের লক্ষ্যে তদারকিমূলক অভিযান চালানো হয়। দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত পরিচালিত অভিযানে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ অভিযান পরিচালনা করেন সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (মেট্টো) মোহাম্মদ ফয়েজ উল্যাহ। উপস্থিত ছিলেন ৭ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ানের ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) কাজী মাহমফুজ হাসান চৌধুরী, এসআই শরিফুল ইসলাম ও বিনিদ কুমার চন্দ্র।

ছামির মাহমুদ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :