প্রাণ ফিরছে ৫৭ খালের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৭:১৫ পিএম, ০২ জুলাই ২০১৯

৫৭টি খালকে বলা হয় চট্টগ্রাম বন্দরনগরীর প্রাণ। এর প্রায় ১০টি দিয়ে ২০ বছর আগেও প্রবেশ করতো জাহাজি সাম্পান-নৌকা। সেই স্মৃতি এখন ধূসর। কোনটা যে খাল আর কোনটা যে নালা, তা চেনাই দুষ্কর।

এবার জলাবদ্ধতা নিরসন মহাপ্রকল্পের আওতায় নগরের ১৩টি খালের ওপর থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। এতে সহায়তা করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) দিনভর নগরের বাকলিয়া থানার কল্পলোক আবাসিক এলাকার রাজাখালী খালের ওপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের স্পেশাল ম্যাজিট্রেট সাইফুল আলম চৌধুরী।

সাইফুল আলম চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, দিনভর অভিযানে ২৬টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০টি পাকা স্থাপনা রয়েছে। এর আগে এসব স্থাপনা মালিকদের বারবার নিজ দায়িত্বে তাদের বাড়িঘর সরিয়ে নেয়ার জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু তারা খালের ওপর থেকে স্থাপনাগুলো সরিয়ে নেননি। আজকের অভিযানে প্রায় এক কিলোমিটার এলাকা দখলমুক্ত করা হয়েছে।

সিডিএ সূত্রে জানা গেছে, বর্ষা মৌসুমকে সামনে রেখে আগেই চট্টগ্রাম নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫৭টি খাল থেকে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম শুরু করা হয়। এবার ১৩টি খালের ওপর তৈরি ১,৫৭৬টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযানে নেমেছে সিডিএ। এতে করে প্রাণ ফিরে পাবে এই ৫৭টি খাল।

আবু আজাদ/জেডএ/পিআর