বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আগেই ডেঙ্গু কেড়ে নিল সুমাইয়ার প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৫:৩৬ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমাইয়া আক্তার (১৮) নামের এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে।

সুমাইয়া পটুয়াখালীর দুমকি সরকারি জনতা কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. ফজলুল হকের মেয়ে। তার গ্রামের বাড়ি বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল এলাকায়।

সুমাইয়ার স্বজনরা জানান, দুমকি সরকারি জনতা কলেজ থেকে এ বছর এইচএসসি উত্তীর্ণ হয়ে সুমাইয়া রাজধানী ঢাকার একটি কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়ে কোচিং করছিল। ঈদুল আজহার ছুটিতে সুমাইয়া দুমকিতে বাবা-মার ভাড়াটিয়া বাসায় এসে জ্বরে আক্রান্ত হন।

গত মঙ্গলবার উপজেলা হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ডেঙ্গু শনাক্তের পর সুমাইয়াকে সেখানে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য শুক্রবার বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এসএম বাকীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ১৬ আগস্ট বিকেলে সুমাইয়া আক্তারকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তির সময় ডেঙ্গু ছাড়াও ডায়রিয়া ও প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত যাচ্ছিল তার। রোববার রাতে তার অবস্থা আরও খারাপ হলে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। সব ধরনের চেষ্টা করেও সুমাইয়াকে বাঁচানো যায়নি। দুপুর ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২১ দিনের ব্যবধানে পাঁচজন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় গত ৩০ জুলাই ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও এক রোগীর মৃত্যু হয়।

অন্যদিকে, সোমবার পর্যন্ত মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২৬৯ জন ডেঙ্গু রোগী। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৬৫ জন।

সাইফ আমীন/এএম/এমকেএইচ