রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে নোটিশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ১০:০২ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নোয়াখালী পাসপোর্ট অফিস থেকে তিন রোহিঙ্গার পাসপোর্ট নেয়ার ঘটনায় গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) দুই এএসআইকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

তারা হলেন- জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) এএসআই আবুল কালাম আজাদ ও এএসআই নুরুল হুদা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আলমগীর হোসেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রাম নগরের সিডিএ ১ নম্বর রোডের মাথায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে তিন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নোয়াখালী থেকে পাসপোর্ট তৈরি করেছেন তারা তিনজনই।

গ্রেফতার তিনজনের মধ্যে মোহাম্মদ ইউসুফ (২৩) ও তার ছোট ভাই মোহাম্মদ মুসার (২০) বাড়ি মিয়ানমারের মংডুর দুমবাইয়ে। আর মোহাম্মদ আজিজ ওরফে আইয়াজ (২১) বাড়ি মংডুর চালিপাড়ায়।

এসপি আলমগীর বলেন, ডিএসবিতে কর্মরত ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা তিন রোহিঙ্গা তরুণের পাসপোর্ট আবেদনে দেয়া ঠিকানা যাচাইয়ের দায়িত্বে ছিলেন। বৃহস্পতিবার এসপি অফিস থেকে তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। নোটিশে আগামী তিন দিনের মধ্যে তাদের এ বিষয়ে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে। জবাব পাওয়ার পর এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এসপি আরও বলেন, নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কাদরা ইউনয়নের ঠিকানা ব্যবহার করে তিন রোহিঙ্গা তরুণের বাংলাদেশি পাসপোর্ট নেয়ার পুরো ঘটনাটি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) দীপক জ্যোতি খীসার নেতৃত্বে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তে দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিএসবি কর্মকর্তা, জাল সার্টিফিকেট সৃজনের সঙ্গে জড়িতরা এবং যারা কাগজপত্র সত্যায়ন করেছে প্রত্যেকে চিহ্নিত করা হবে এবং দায়ী প্রত্যেকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এএম/এমকেএইচ