পুলিশের ওপর হামলা, ভাইস-চেয়ারম্যানসহ তিনজন কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নড়াইল
প্রকাশিত: ০২:১৫ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নড়াইলে ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. মনিরুজ্জামানসহ কর্তব্যরত পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান ও সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য দুইজন হলেন- নাজমুল হোসেন (২৫) ও মেহেদী হাসান (২৪)।

পুলিশ জানিয়েছে উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানকে রোববার রাতে এবং বাকি দুইজনকে সোমবার সকালে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের আজ (সোমবার) আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তিনজনকেই কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

এর আগে রোববার রাতে আহত ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ ৯ জনের নামে মামলা করেন।

নড়াইল ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জিহাদ হাসান জানান, নড়াইল পুরাতন বাস টার্মিনাল মোড়ে বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালানোর সময় রোববার সন্ধ্যায় এক তরুণকে আটক করে ট্রাফিক পুলিশ। মোটরসাইকেলের কোনো কাগজপত্র না থাকায় পুলিশ সেটিকে আটকে রাখে। ওই তরুণ তখন বিষয়টি উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানকে জানায়।

Narail-1

আহত ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান

এ সময় তুফান ফোন করে মোটরসাইকেলটি ছেড়ে দিতে বললে ট্রাফিক পুলিশ অপারগতা প্রকাশ করে। এরপর তিনি ৭/৮ জন লোক নিয়ে ট্রাফিক পুলিশের ওপর হামলা করেন। এতে ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. মনিরুজ্জামান, সার্জেন্ট শাহ জালাল, টিএসআই সরোয়ার আলম এবং কনস্টেবল নজরুল আহত হন। তাদের মধ্যে মনিরুজ্জামান নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় আহত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে ৯ জনের নামে রোববার রাতেই মামলা করেছেন।

এ ঘটনায় আসামি সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানকে রোববার রাতে এবং আরও দুইজনকে সোমবার সকালে গ্রেফতার করা হয়। পরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনজনকে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাদের সবাইকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

সূত্র জানায়, বেশ কয়েকদিন ধরেই জেলার বিভিন্ন সড়কে তরুণদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালনার বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করছে ট্রাফিকসহ গোয়েন্দা পুলিশ। এরই অংশ হিসেবে রোববারও যৌথ অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ বিভাগ।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. জসিম উদ্দিন জানান, সিসি টিভির ফুটেজে প্রমাণিত হয়েছে সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফানসহ একাধিক যুবক রোববার কর্তব্যরত পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

হাফিজুল নিলু/এমএমজেড/পিআর