নেতাকর্মীদের অবরোধের মুখে আ.লীগের রাজুর মনোনয়ন প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৫:৪৩ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু।

মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে মনোননয়নপত্র প্রত্যাহার করেন তিনি।

raju-(1)

এর আগে বিকেল ৪টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে যাওয়ার সময় দলীয় নেতাকর্মীদের বাধার মুখে পড়েন রাজু। এ সময় নেতাকর্মীরা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনের সড়কে শুয়ে পড়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে মনোনয়ন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার দাবি জানান। এতে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় আধঘণ্টা অবরোধের পর নেতাকর্মীদের বুঝিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে যান রাজু।

বিকেল সাড়ে ৪টায় মনোনয়ন প্রত্যাহার শেষে বেরিয়ে রেজাউল করিম রাজু বলেন, জাতীয় রাজনীতির স্বার্থে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মনোনয়ন প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

raju-(1)

রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি কর্পোরেশনের ২৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২১ হাজার ৩১০ এবং ২ লাখ ২০ হাজার ৭৬২ নারী ভোটার। ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটিতে ইভিএমে ভোট অনুষ্ঠিত হয়।

raju-(1)

সেই ভোটে ১ লাখ ৪২ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছিলেন ৫৩ হাজার ৮৯ ভোট। এবারও ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হয়েছেন রিটা রহমান। এছাড়া জাতীয় পার্টির রংপুর জেলার সাবেক সদস্য সচিব ও জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচিত সাবেক সংসদ সদস্য এবং এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জিতু কবীর/এমবিআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]