ইলিশ ধরার জালে আটকা পড়ল ২২ মহিষ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৩:১৩ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার মেঘনা নদীতে ইলিশের ধরার জালে আটকা পড়েছে মালিকবিহীন ভাসমান ২২টি মহিষ। সোমবার রাতে মহিষগুলো স্থানীয় তিন রাখালের জিম্মায় রাখা হয়েছে। এর আগে বিকেলে উপজেলার চরঈশ্বর ইউনিয়নের মাইচ্চা মার্কেট সংলগ্ন মেঘনা নদীতে ইলিশ ধরার জালে ভাসমান মহিষগুলো আটকা পড়ে।

নৌকার মালিক শাহজাহান ও জেলেরা জানান, বিকেলে মেঘনা নদীতে নৌকার মাঝি সাইফুল ইসলাম (কালু মাঝি) তার ইলিশ ধরার জন্য জাল ফেললে ওই জালে বেশ কিছু ভাসমান মহিষ আটকা পড়ে। পরে নদীতে টহলরত নৌ পুলিশের সহযোগিতায় ২২টি মহিষ জালসহ তীরে আনা হয়।

নলচিরা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুর রহমান ঢালী জানান, উদ্ধার হওয়া মহিষগুলোর জব্দ তালিকা করা হয়েছে। বাচ্চা মহিষ-১০টি, ছেলি মহিষ- ৩টি, সাদাকালো মাদাম মহিষ- ৫টি, কালো মাদাম মহিষ-৩টি, ছেলা মহিষ-১টিসহ মোট ২২টি মহিষ স্থানীয় তিন রাখালের জিম্মায় রাখা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, মহিষগুলোর আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় ১৫ লাখ টাকা হবে। টহলকালে নদীতে ৪ হাজার মিটার মালিকানাবিহীন কারেন্ট জালও জব্দ করা হয়। এ ব্যাপারে নলচিরা নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে একটি জিডি করা হয়েছে।

মিজানুর রহমান/আরএআর/পিআর