রামেক হাসপাতালে অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৯:০৬ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দীর্ঘদিন ধরেই নানা অব্যবস্থাপনা চলে আসছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে। এবার এসব অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধের দাবিতে জানিয়েছে রাজশাহীবাসী।

শনিবার মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। ‘রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের’ ব্যানারে নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

এতে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন। হাসপাতালের চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়নের দাবি জানানো হয়। একই সঙ্গে জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত, বন্ধ থাকা বাসাবাড়িতে গ্যাস সংযোগ চালু এবং জেলা ও মহানগরে গড়ে উঠা মাদক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযানের দাবি জানানো হয়।

রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, মুক্তিযোদ্ধা ডা. আবদুল মান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু ও রাজশাহী চেম্বারের সাবেক পরিচালক হারুনুর রশিদ প্রমুখ।

সমাবেশে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান বলেন, রামেক হাসপাতাল এখন চিকিৎসাসেবার পরিবর্তে অপচিকিৎসালয়ে পরিণত হয়েছে। রোগীরা চিকিৎসাসেবার পরিবর্তে নার্স, ইন্টার্ন চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হাতে নাজেহাল হচ্ছেন প্রতিনিয়ত। অধিকারের কথা বলতে গেলে রোগী ও তার স্বজনরা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এসব বন্ধ করে রোগীবান্ধব হাসপাতাল গড়ে তোলার দাবি জানান তিনি।

জামাত খান আরও বলেন, স্বাস্থ্যসেবা মানুষের মৌলিক অধিকার তা নিশ্চিত করতে হবে। রামেক হাসপাতাল পরিচালক ও পর্ষদের ব্যর্থ সদস্য সচিবসহ মেডিকেলের ওষুধ চুরি ও টেন্ডারবাজিতে জড়িতদের অপসারণ করতে হবে। দীর্ঘদিন ধরে যেসব চিকিৎসক হাসপাতালে আছেন তাদের বদলি করতে হবে।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/এএম/জেআইএম