‘শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারীর বাবা ষড়যন্ত্রের শিকার’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০২:৫৩ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার রাজাকারের তালিকা প্রণয়ন নিয়ে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদে সাবেক অতিরিক্ত সচিব ফরহাদ রহমান মাক্কিকে জড়ানোয় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার বেলা ১১টার দিকে সরাইল শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সম্মিলিত নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে ফরহাদ রহমান মাক্কি কুচক্রি মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন বক্তারা। মাক্কি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদের বাবা।

সম্মিলিত নাগরিক সমাজের সভাপতি ইদ্রিছ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সরাইল উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আশরাফ উদ্দিন মন্তু, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শের আলম, সরাইল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ইছমত আলী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ফরহাদ রহমান মাক্কি আওয়ামী লীগের জন্য নিবেদিত হয়ে কাজ করছেন। তিনি সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই একটি কুচক্রি মহল তার বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে মাক্কিকে ছোট করার জন্য পত্রিকায় মাক্কির বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের সরাইলে ঢুকতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা।

উল্লেখ্য, গত ৯ সেপ্টেম্বর একটি জাতীয় দৈনিকে সরাইল উপজেলার রাজাকারদের তালিকা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ছাড়াই ফরহাদ রহমান মাক্কির প্রভাবে উপজেলা প্রশাসন শীর্ষ রাজাকারদের বাদ দিয়ে ওই তালিকা প্রণয়ন করে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। ১৯৭১ সালের অক্টোবরে সরাইল থানা শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নাফ ঠাকুর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে নিহত হওয়ার পর মাক্কির বাবা ফয়েজ আহমেদ খন্দকার শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান নিযুক্ত হন বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

আজিজুল সঞ্চয়/এমএএস/পিআর