এবার ইয়াবার মামলায় গ্রেফতার ক্যাসিনো গুরু আরমান

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ০১:৪৭ পিএম, ১০ অক্টোবর ২০১৯

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সহসভাপতি (বর্তমানে বহিষ্কৃত) এনামুল হক ওরফে আরমানকে (৪৫) ইয়াবার মামলায় গ্রেফতার দেখানো (শোন অ্যারেস্ট) হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আরমানকে কড়া পুলিশ প্রহরায় কুমিল্লার আমলি আদালত- ৫ এর বিচারক ও কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া আক্তারের আদালতে হাজির করা হয়। পরে পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৪০ পিস ইয়াবা রাখার দায়ে দায়ের মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানোর (শোন এরেস্ট) নির্দেশ দেন বিচারক। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের এসআই মনির হোসেন।

এর আগে গত শনিবার গভীর রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি (বর্তমানে বহিষ্কৃত) ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ও তার সহযোগী এনামুল হক ওরফে আরমানকে কুমিল্লা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তারা জেলার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের ভারত সীমান্তবর্তী গ্রাম কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামের জামায়াত নেতা ও ফেনীর পৌর মেয়র আলাউদ্দিনের ভগ্নিপতি মনিরুল ইসলাম চৌধুরী প্রকাশ ছক্কা মিয়ার বাড়ি আত্মগোপন করেছিলেন।

গ্রেফতারের সময় আরমানকে মদ্যপ অবস্থায় পাওয়া যায়। তার পকেট থেকে ১৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় মাদক সেবনের দায়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত আরমানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন। রোববার রাতে আরমানকে ফেনী থেকে কুমিল্লা কারাগারের একটি সেলে রাখা হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আরমানকে ঢাকায় নেয়া হয়।

এদিকে বৃহস্পতিবার ইয়াবার মামলায় গ্রেফতার দেখাতে তাকে কুমিল্লার আদালতে হাজির করা হয়। ইয়াবা রাখার দায়ে র‌্যাব-৭ এর এসআই নিজাম উদ্দিন বাদী হয়ে আরমানের বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেছিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের এসআই মনির হোসেন জানান, আরমানের কাছ থেকে ১৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় তাকে গত সোমবার গ্রেফতার দেখানোর আবেদন করা হয়েছিল। কুমিল্লার ৫নং আমলি আদালতের বিজ্ঞ বিচারক আজ আবেদন মঞ্জুর করেছেন। বিচারক মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৬ নভেম্বর ধার্য করেছেন।

কামাল উদ্দিন/আরএআর/জেআইএম