পৌনে দুই লাখ টাকাসহ সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের কেরানি ধরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ০৮:৪০ এএম, ১১ অক্টোবর ২০১৯

যশোরের ঝিকরগাছা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের আলোচিত কেরানি রবিউলকে পৌনে দুই লাখ টাকাসহ আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রেজিস্ট্রি অফিসে আড়াই ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে রবিউলকে আটক ও ওই টাকা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত টাকা ‘ঘুষের’ বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছেন দুদক কর্মকর্তারা।

দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নাজমুচ্ছায়াদাত জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তারা ঝিকরগাছায় অভিযান চালান। এ সময় রেজিস্ট্রি অফিসের কেরানি রবিউলকে আটক করা হয়। আটকের পর রবিউলের কাছ থেকে এক লাখ ৩৩ হাজার ২৭ টাকা এবং অফিস থেকে আরও ৪২ হাজার ২৬৫ টাকা উদ্ধার করা হয়। ৪২ হাজার ২৬৫ টাকা অফিসের দাবি করলেও এক লাখ ৩৩ হাজার ২৭ টাকার কোনো হিসাব তিনি দিতে পারেননি। তাকে আটক করে নিয়ে আসা হয়েছে।

এদিকে সন্ধ্যায় দুদকের অভিযান টের পেয়ে আরেকটি টাকার ব্যাগসহ জহুরুল মুহুরী নামে একজন সরে পড়েন। অভিযোগ রয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে ঝিকরগাছা রেজিস্ট্রি অফিসে কেরানি রবিউলের নেতৃত্বে একটি ঘুষখোর সিন্ডিকেট খুব বেপরোয়া হয়ে উঠেছিল। এ নিয়ে প্রায়ই ভোগান্তির শিকার হয়ে চলেছেন সাধারণ মানুষ এবং মুহুরীরা। কেরানি রবিউলের সিন্ডিকেটে ঘুষের টাকার দুটি ভাগ করা ছিল। যার একটি অংশের ঘুষের টাকা কেরানি রবিউলের কাছে এবং অপর অংশ থাকে জহুরুল মুহুরীর কাছে থাকতো। আটক কেরানি রবিউল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জহুরুলের কাছে অপর অংশের ঘুষের টাকা থাকার কথা স্বীকার করেছেন। প্রতি সপ্তাহে তিনদিন এভাবে ঘুষের টাকা ওই দুজনের কাছে জমা হয়। যার পরিমাণ প্রায় ৭ লাখ টাকা।

প্রায় আড়াই ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদে কেরানি রবিউল দুদক কর্মকর্তাদের কাছে ঝিকরগাছায় তার ও জহুরুলের নিকট থেকে ওই ঘুষের টাকায় ভাগ নেয়া কয়েকজনের নাম প্রকাশ করলেও দুদক কর্মকর্তারা তদন্তের স্বার্থে নামগুলি বলতে রাজি হননি।

মিলন রহমান/আরএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]