ঘুষের টাকাসহ ধরা পড়লেন ভূমি কর্মকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

ঘুষের টাকাসহ বগুড়ার গাবতলী উপজেলার নাড়ুয়ামালা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আব্দুল হান্নানকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রোববার দুপুরে ইউনিয়ন ভূমি অফিস থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, কয়েকদিন আগে নাড়ুয়ামালার জয়ভোগা গ্রামের মতিউর রহমান মানিক পৈতৃকসূত্রে প্রাপ্ত ১৩ শতক আবাদি জমির খাজনা দেয়ার জন্য নাড়ুয়ামালা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যান। ভূমি কর্মকর্তা আব্দুল হান্নান হিসাব-নিকাশ করে মানিককে বলেন ১৩ শতক জমির খাজনা বাবদ ১৪৩ টাকা দিতে হবে। কিন্তু এই ১৪৩ টাকার সঙ্গে আরও ১৩ হাজার ঘুষ দিতে হবে।

গত ১৪ অক্টোবর ১০৬ নম্বরে কল করে বিষয়টি দুদককে জানান মানিক। ওই দিনই বগুড়ার দুদক কর্মকর্তারা মানিককে অফিসে ডেকে নিয়ে বিস্তারিত শোনেন। এরপর ভূমি কর্মকর্তা হান্নানকে ধরতে ফাঁদ পাতেন তারা।

পরিকল্পনা অনুযায়ী মানিক রোববার দুপুরে নাড়ুয়ামালা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে গিয়ে হান্নানকে ঘুষের ১৩ হাজার টাকা ও খাজনা বাবদ ১৪৩ টাকা দেন। হান্নান তখন ১৩ হাজার টাকা নিজের পকেটে রেখে শুধু ১৪৩ টাকার একটি রশিদ মানিকের হাতে ধরিয়ে দেন।

এদিকে দুদক কর্মকর্তারা অফিসের বাইরে ছিলেন। এরপরই ভূমি অফিসে ঢুকে ঘুষের ১৩ হাজার টাকাসহ হান্নানকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেন দুদক কর্মকর্তারা।

গ্রেফতারকৃত হান্নান বগুড়া সদরের বাঘোপাড়া এলাকার মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে। তিনি বর্তমানে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বগুড়া শহরের বৌবাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করেন।

দুদকের এ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন দুর্নীতি দমন কমিশন বগুড়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান, সহকারী পরিচালক আমিনুল ইসলাম ও ওয়াহিদ মুঞ্জুর সোহাগ ও সুদীপ কুমার চৌধুরী।

দুদকের উপ-পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, মতিউর রহমান মানিকের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ফাঁদ পেতে ভূমি কর্মকর্তা হান্নানকে ঘুষের টাকাসহ গ্রেফতার করা হয়।

এএম/এমএস