রাঙ্গার বিচার দাবিতে রংপুরে আ.লীগ-বিএনপি-বাম এক কাতারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৪:২৮ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নিহত শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে তৃতীয় দিনের মতো বুধবারও রংপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১টায় নগরীর কাচারিবাজারে সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের ব্যানারে নব্বইর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দানকারী বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতাদের উপস্থিতিতে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা বলেন, শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে কটূক্তি করে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা শুধু শহীদ নূর হোসেনের পরিবার ও গণতন্ত্রকে অপমান করেননি। তিনি রংপুর অঞ্চলের সহজ-সরল মানুষকে অপমান করেছেন। এই কটূক্তির জন্য শুধু বিবৃতি দিয়ে ক্ষমা চাইলে দেশের মানুষ রাঙ্গাকে ক্ষমা করবে না। এজন্য জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে এবং নূর হোসেনের মায়ের কাছে স্ব-শরীরে গিয়ে ক্ষমা চাইতে হবে।

দ্রুত ক্ষমা না চাইলে দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে রাঙ্গাকে দমন এবং তাকে রংপুরে ঢুকতে দেয়া হবে না বলেও ঘোষণা দেন তারা। এছাড়া তার (রাঙ্গা) অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।

সাবেক ছাত্রনেতা ও রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফির সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা তুষার কান্তি মণ্ডল, সাবেক ছাত্রনেতা ও রংপুর মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মিজু, সাবেক ছাত্রনেতা আনিছুর রহমান লাকু, বাসদ নেতা কমরেড আব্দুল কুদ্দুস, জাসদ নেতা গৌতম রায়, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা মাজিরুল ইসলাম লিটন, শিক্ষক নেতা সাফিয়ার রহমান, ডা. সৈয়দ মামুনার রশীদ, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান দেবদাস ঘোষ দেবু, সাবেক ছাত্রনেতা নওশাদ রশীদ, আজিজুল ইসলাম, ওবায়দুর রহমান ময়না, মোস্তফা, অ্যাডভোকেট দিলশাদ ইসলাম মুকুল, সাংবাদিক নেতা রফিক সরকার ও আবেদুল হাফিজ। মানববন্ধন পরিচালনা করেন সাবেক ছাত্রনেতা শহীদুল ইসলাম খুররম।

অন্যদিকে দুপুর ২টায় কোর্ট চত্বরে একই দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আইনজীবী পরিষদ।

জিতু কবীর/এমবিআর/এমএস