ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে উড়ে গেছে মাদরাসার চালা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৯

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার উত্তর দিয়াশুর পীর দুদু মিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসা ভবনটি সম্পূর্ণ বিধ্বস্থ হয়েছে। এরপর থেকে ওই বিদ্যালয়ের ২৫০ শিক্ষার্থীকে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান করা হচ্ছে।

মাদরাসার শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৯৮৪ সালে উত্তর দিয়াশুর স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসাটি চালু হয়। মাদরাসায় পাঠদানের জন্য ১০ জন শিক্ষক রয়েছেন। মাদরাসাটি কাঠের কাঠামোর উপর টিনের চালা দিয়ে তৈরি। গত রোববার (১০ নভেম্বর) ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে মাদরাসাটির টিনের চালয় দুটি বড় গাছ উপরে পড়ে। এতে কক্ষগুলো সম্পূর্ণ বিধ্বস্থ হয়ে যায়। বন্ধ হয়ে যায় পাঠদান। তবে সামনে বার্ষিক পরীক্ষার কথা ভেবে বিধ্বস্ত কক্ষের পাশেই খোলা জায়গায় বেঞ্চ পেতে চলছে পাঠ দান।

শিক্ষকরা জানান, সামনে বার্ষিক পরীক্ষা। তাই ক্লাস বন্ধ হয়নি। এখন ক্লাস বন্ধ রাখলে শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ায় পিছিয়ে পড়বে। পরীক্ষায় ভালো ফল করতে পারবে না।

barishal-2

এ দিকে মাদরাসার কক্ষগুলো বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে অভিভাবকেরা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। তারা বলেন, আশেপাশে কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় তাদের ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার জন্য অন্য কোনো জায়গায় যাওয়ার উপায় নেই। মাদরাসাটি সংস্কার করতে এলাকার বিত্তবানদের প্রতি সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষক ও অভিভাবকেরা ।

গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ইসরাত জাহান বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে উপজেলায় ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মাঠপর্যায়ে কর্মকর্তারা এখনও ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছেন। তালিকা তৈরি হলে সরকারি সহায়তার জন্য ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাইফ আমীন/এমএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]