অ্যাপসের মাধ্যমে ফসল বিক্রি করতে পারবেন কৃষক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০১৯

প্রান্তিক কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল নিজেরাই সরাসরি সরকারের কাছে বিক্রি করতে পারে এজন্য তৈরি করা হয়েছে অ্যাপস। প্রান্তিক কৃষকরা যাতে কোনোভাবে ধান ও চাল বিক্রয় করার ক্ষেত্রে নায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই প্রধানমন্ত্রী এ নতুন প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

এখন থেকে কৃষকরা মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে তাদের উৎপাদিত ফসল নিজেরাই সরাসরি সরকারের কাছে বিক্রি করতে পারবেন।

মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) সকালে বরিশাল সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে ‘ডিজিটাল খাদ্যশস্য সংগ্রহ ও কৃষকের অ্যাপ’ সংক্রান্ত কর্মশালার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান।

দিনব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজন করে বরিশাল খাদ্য বিভাগ। কর্মশালায় বরিশাল সদর উপজেলা ও ভোলা সদর উজেলার সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও ইউনিয়ন ডিজিটাল উদ্যোক্তাদের মধ্য থেকে শতাধিক কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান বলেন, প্রান্তিক কৃষকরা যাতে কোনোভাবে ধান, চাল বিক্রয় করার ক্ষেত্রে নায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কোনোভাবেই রাজনৈতিক কিংবা অনৈতিক চাপের মুখে কৃষকের কাছ থেকে ধান চাল ক্রয় করার ক্ষেত্রে কারও কাছে নতি স্বীকার করতে না হয়।

জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান বলেন, প্রান্তিক কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল বিক্রিতে যাতে কোনো ধরনের প্রতারণার শিকার না হয় এজন্য প্রধানমন্ত্রী নতুন প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। এখন থেকে কৃষকরা মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে তাদের উৎপাদিত ফসল নিজেরাই সরাসরি সরকারের কাছে বিক্রি করতে পারবেন। এতে করে ধান ও চাল বিক্রয় করার ক্ষেত্রে নায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হবেন না কৃষকরা। তাই এখন থেকে অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল বিক্রি করার আহ্বান জানান কৃষকদের।

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা মো. মাইনুদ্দিনের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন, বরিশাল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হরিদাশ শিকারী ও ভোলা জেলা খাদ্য কর্মকর্তা তৈয়েবুর রহমান।

সাইফ আমীন/এমএএস/এমএস