বিআরটিসির বাস কমাতে ময়মনসিংহ থেকে বাস চলাচল বন্ধ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৮:২২ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

বিভিন্ন সড়কে বিআরটিসি বাস সীমিত চলাচলের দাবিতে ও শ্রমিক মারধরের প্রতিবাদে ময়মনসিংহ থেকে সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বৃহত্তর ময়মনসিংহের পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। হঠাৎ করে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

একাধিক পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতারা জানায়, ময়মনসিংহ বিআরটিসি বাস ডিপো থেকে এ অঞ্চলের বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ সড়কে বাস সার্ভিস চালু করে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি তারা ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা সড়কেও বিআরটিসি বাস সার্ভিস চালু করে। এতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা আপত্তি জানায়।

গত তিন দিনেও বিআরটিসি বাস না বন্ধ করায় অন্য বাস মালিক ও শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এ কারণে সোমবার (৯ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে তিনটা থেকে শহরের মাসকান্দা আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল থেকে ঢাকাগামী এবং পাটগুদাম বাস টার্মিনাল থেকে কিশোরগঞ্জ, ভৈরব, নেত্রকোনাসহ জেলার বিভিন্ন সড়কে বাস চলাচল বন্ধ করে দেন তারা। কোনো ঘোষণা ছাড়াই হঠাৎ করে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

মাসকান্দা বাস টার্মিনালের বাস চালক ফারুক জানান, পরিবহন মালিকদের সিদ্ধান্তেই আমরা বাস চালাচল বন্ধ রেখেছি।

brtc

পাটগুদাম বাস টার্মিনালের শ্যামলছায়া পরিবহনের টিকিট মাস্টার মোবারক হোসেন জানান, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতারা শুরু থেকে বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। র্দীঘদিনেও বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধ না করায় অন্য বাস মালিক ও শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়।

ঢাকাগামী যাত্রী ইকবাল হোসেন বলেন, ঢাকা থেকে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ময়মনসিংহে বেড়াতে এসেছিলাম। বিকেলে মাসকান্দা বাসস্ট্যান্ডে এসে দেখি কোনো বাস ছাড়ছে না। এখন কীভাবে যাব বুঝতে পারছি না।

এ ব্যাপারে জেলা মোটর মালিক সমিতির সম্পাদক (কোচ বিভাগ) সোমনাথ সাহা জাগো নিউজকে বলেন, আমরা ময়মনসিংহের বিভিন্ন সড়কে আলোচনার ভিত্তিতে সীমিত আকারে বিআরটিসি বাস চালুর দাবি জানিয়ে আসছিলাম। সম্প্রতি তারা নেত্রকোনাসহ বিভিন্ন সড়কে আরও বেশি আকারে বাস চালু করেছে। এ নিয়ে গত রোববার (৮ ডিসেম্বর) আমাদের শ্রমিককে বিআরটিসির চালক ও শ্রমিকরা মারধর করেছে। পরে আমরা বৃহত্তর ময়মনসিংহের বাস মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে বিকেল থেকে দূর-পাল্লাসহ সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ রেখেছি। আমাদের দাবি বিআরটিসি বাস বন্ধ না, সীমিত আকারে চলাচল।

এমএএস/জেআইএম