মুক্তিযোদ্ধার সমাধিস্থল ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করলেন সাংবাদিকরা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ০৫:১৩ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

মহান মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখযুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনীর বুলেটে প্রাণ দিয়েছিলেন কিশোর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোহাম্মদ দস্তগীর টিটো। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর টিটোর রক্তের বিনিময়ে হানাদারমুক্ত হয় সাভার।

কিন্তু বিজয়ের ৪৮ বছরেও সাভার মুক্ত দিবসে অকুতোভয় এই কিশোর মুক্তিযোদ্ধার সমাধিস্থল পড়ে রয়েছে অবহেলায়। ১৯৯৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর নবম পদাতিক ডিভিশনের প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ডেইরিগেট এলাকায় শহীদ টিটোর সমাধির ফলক উন্মোচন করেন।

এরপর থেকে টিটোর সমাধির দিকে নজর নেই স্থানীয় প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনৈতিক নেতাসহ সংশ্লিষ্টদের। ১৪ ডিসেম্বর সাভার মুক্ত দিবসে প্রতি বছর শুধুমাত্র স্থানীয় সাংবাদিকরা তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে এলেও খোঁজ মেলে না প্রশাসনের। এমনকি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানেন না টিটোর সমাধির কথা। সাংবাদিকরা ইউএনওকে এ বিষয়ে জানালেও সাভার মুক্ত দিবসে শ্রদ্ধা জানাতে আসেনি প্রশাসনের কেউ।

savar

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। মুক্তিযোদ্ধা টিটোর সমাধির কথা আমার জানা নেই।

তবে প্রতি বছরের মতো ১৪ ডিসেম্বর সাভার মুক্ত দিবসে স্থানীয় সাংবাদিকরা নিজ উদ্যোগে শহীদ টিটোর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে এসে দেখেন সমাধির নাজুক অবস্থা। ধুলাবালু আর ময়লা-আবর্জনায় শ্রদ্ধা জানানোর পরিবেশ নেই সেখানে। এ অবস্থায় সমাধি ধুয়েমুছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে শ্রদ্ধা জানান সাংবাদিকরা।

মুক্তিযোদ্ধা টিটোর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন- সময় টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি মোজাফফর হোসেন জয়, আরটিভির জিয়াউর রহমান জিয়া, নিউজ২৪ ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের নাজমুল হুদা, খোকা মুহাম্মদ চৌধুরী ও দৈনিক যুগান্তরের মতিউর রহমান, ডেইলি স্টারের আকাশ মাহমুদ ও জাগো নিউজের আল-মামুন প্রমুখ।

savar

২নং সেক্টর কমান্ডার ও সাভার উপজেলা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি মো. আইনুদ্দিন বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে কিশোর মুক্তিযোদ্ধা টিটোর আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে সাভার হানাদার মুক্ত হয়। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় ৪৮ বছরেও সাভার হানাদার মুক্ত দিবস পালনে কোনো উদ্যোগ নেয়নি উপজেলা প্রশাসন। এমনকি শহীদ টিটোর সমাধিতেও জানানো হয় না শ্রদ্ধা।

সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলা বলেন, পারিবারিক কাজে আমি ব্যস্ত থাকার কারণে শহীদ টিটোর সমাধিতে যাওয়া সম্ভব হয়নি।

আল-মামুন/এএম/জেআইএম