ফু-ওয়াংয়ের খাদ্যপণ্যে অগ্রিম তারিখ লিখে প্রতারণা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৯:৫৪ এএম, ২৮ জানুয়ারি ২০২০

পণ্যের গায়ে উৎপাদনের অগ্রিম তারিখ লিখে ক্রেতাদের সঙ্গে প্রতারণার দায়ে বরিশালে ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের দুই শতাধিক খাদ্যপণ্যের কার্টন জব্দ করা হয়েছে। পাশাপাশি ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের নগরীর সিএন্ডবি রোড সংলগ্ন কাজীপাড়া ডিপোর দুই কর্মচারীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে জেলা প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বরিশাল কার্যালয়ের কর্মকর্তারা যৌথভাবে এ অভিযান চালান। কোতয়ালি থানা পুলিশের সদস্যরা অভিযানে সহায়তা করেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বরিশাল ডিপোর মো. জাকির হোসেন ও মো. শফিক। কর্মচারী মো. জাকির হোসেনকে এক মাস ও কর্মচারী শফিককে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয়। একই সঙ্গে তাদের দুইজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

fu-wang

অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এএফএম শামীম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে বরিশাল নগরীর কাজীপাড়া ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের ডিপোতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ডিপো ও ট্রাকে তল্লাশি করে দেখা যায়- ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের জেরি কেক, কাস্টার্ড বান, ভ্যানিলা পাই প্লেইন কেক, এনি টাইম স্লাইস কেকসহ বিভিন্ন খাদ্যপণ্যের গায়ে উৎপাদনের তারিখ উল্লেখ করা আছে ২৮.০১.২০২০। মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ ০২.০২.২০২০। কিন্তু উল্লেখ করা উৎপাদনের তারিখের আগের দিন গতকাল সোমবার (২৭.০১.২০২০) ওই খাদ্যপণ্যগুলো নগরীর সিএন্ডবি রোড সংলগ্ন কাজীপাড়া ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের ডিপোতে আসে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এএফএম শামীম আরও জানান, ডিপোর কর্মচারীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে ২৭ জানুয়ারি পণ্যগুলো বরিশাল ডিপোতে এসেছে। এগুলো তৈরি করা হয়েছে ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের গাজীপুরের কারখানায়। খাদ্যপণ্যগুলো তৈরি করে প্যাকেটজাত করা হয়েছে অন্তত আরও দু’দিন দিন আগে। সাধারণত পণ্যগুলো তৈরি করার পর বাজারজাত করা পর্যন্ত আরও দুই থেকে তিন দিন সময় লাগে। সে হিসাবে ৪-৫ দিন হাতে রেখে উৎপাদনের তারিখ পণ্যের গায়ে বসানো হয়েছে। আর উৎপাদনের তারিখ থেকে পরের পাঁচদিন পণ্যের মেয়াদ দেয়া হয়। যা কি-না জনগণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল। এ কারণে ডিপোর দুই কর্মচারীকে কারাদণ্ড ও জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে খাদ্যপণ্যগুলো জব্দ করা হয়েছে।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বরিশাল কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শাহ শোয়েবুর রহমান জানান, রাত ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত ফু-ওয়াং ফুডস লিমিটেডের ডিপোতে এ অভিযান চলে। এ সময় পণ্যের গায়ে উৎপাদনের অগ্রিম তারিখ লেখা থাকায় ১৪৬ কার্টন জেরি কেক, ৪৬ কার্টন এনি টাইম স্লাইস কেক, ১৪ কার্টন কাস্টার্ড বান, ৫ কার্টন ভ্যানিলা পাই প্লেইন পাই কেক জব্দ করা হয়। রাতেই জব্দ করা খাদ্যপণ্যগুলো পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে।

fu-wang

নগরীর কয়েকজন কনফেকশনারি দোকানের মালিকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ক্রেতারা ফু-ওয়াংয়ের খাদ্যপণ্য কিনে প্রায়ই এ ধরনের অভিযোগ করেন।

ক্রেতারা জানান, দোকান থেকে যেদিন ফু-ওয়াংয়ের খাদ্যপণ্য কিনেন পণ্যের গায়ে উৎপাদনের তারিখ দেয়া থাকে তার পরের দিন। যেমন ১৮.১.২০২০ ফু-ওয়াংয়ের খাদ্যপণ্যের গায়ে উৎপাদনের তারিখ লেখা রয়েছে ১৯.১.২০২০। ফু-ওয়াংয়ের মতো বহু দিনের পুরোনো একটি কোম্পানি নিত্যপণ্য নিয়ে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করছে। ক্রেতারা না জেনে বাসি খাদ্যপণ্য খাচ্ছেন। এতে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হচ্ছে।

সাইফ আমীন/আরএআর/জেআইএম