৫০ হাজার টাকার জন্য স্ত্রীকে হত্যা, যুবকের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৮:৩৮ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
দণ্ডপ্রাপ্ত মনির হোসেন

বরিশালে যৌতুক না পেয়ে নির্যাতন করে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে মনির হোসেন (৩০) নামের এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার আসামি মনিরের বাবা-মা ও ভাইকে খালাস দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ এ রায় দেন। রায়ের পর মনির হোসেনকে কারাগারে পাঠানো হয়। মনির হোসেন বরিশালের হিজলা উপজেলার বড়জলিয়া ইউনিয়নেরর বাউশিয়া গ্রামের শফি রাঢ়ির ছেলে।

ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী (পেশকার) মো. আজিবর রহমান বলেন, হিজলা উপজেলার বাহেরচর গ্রামের মাকসুদা বেগমের সঙ্গে ২০১০ সালে মনির হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় মনির হোসেন শ্বশুরবাড়ি থেকে যৌতুক বাবদ নগদ অর্থ ও আসবাবপত্র নেন। বিয়ের এক বছরের মাথায় তাদের এক ছেলেসন্তান হয়।

কিছুদিন পর যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী মাকসুদাকে নির্যাতন শুরু করেন। ৫০ হাজার টাকা বাবার বাড়ি থেকে এনে দিতে বলেন মনির হোসেন। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ৬ জানুয়ারি রাতে মনির হোসেন ৫০ হাজার টাকা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে মাকসুদাকে মারধর করেন। নির্যাতনে ওই রাতেই মাকসুদার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার পরদিন ৭ জানুয়ারি হিজলা থানায় হত্যা মামলা করেন মাকসুদা বেগমের বড় ভাই মো. অলি উদ্দিন। মামলায় মনির হোসেন ও তার বাবা-মা এবং ছোট ভাইকে আসামি করা হয়। ট্রাইব্যুনাল আটজনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে মনির হোসেনকে মৃত্যুদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা করেন।

সাইফ আমীন/এএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]