চাকরির কথা বলে তিন তরুণীকে ফ্ল্যাটে আটকে দেহ ব্যবসা করালেন তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৯:৪৫ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

চাকরি দেয়ার কথা বলে বরিশাল নগরীর শ্রীনাথ চ্যাটার্জি লেনের একটি ভবনের ফ্ল্যাটে তিন তরুণীকে আটকে রেখে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করার ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আটক তিনজন এবং ওই ভবনের মালিকের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

আটকরা হলেন- ওই ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া মো. আলী রানা ও তার স্ত্রী সাহানারা বেগম জেসমিন এবং তাদের সহযোগী দালাল মো. আকাশ রহমান।

এছাড়া চারতলা ওই ভবনের মালিক সুইজারল্যান্ড প্রবাসী মো. সেলিমকেও মামলায় আসামি করা হয়েছে। আটক জেসমিন একটি মামলায় এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত ও ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত আসামি। তিনি গ্রেফতার এড়াতে দীর্ঘদিন ধরে আত্মগোপনে রয়েছেন।

ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া তিন তরুণীর বাড়ি নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ওসি নুরুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ সদস্যরা নগরীর শ্রীনাথ চ্যাটার্জি লেনের একটি ভবনের ফ্ল্যাটে মঙ্গলবার সকালে অভিযান চালিয়ে ওই তিন তরুণীকে উদ্ধার করেন।

এসময় আটক করা হয় তিনজনকে। উদ্ধার হওয়ারা দরিদ্র পরিবারের। ভালো বেতনে বিউটিপার্লারে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে তাদের ফ্ল্যাটে ডেকে এনে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করা হয়।

ওসি নুরুল ইসলাম বলেন, প্রায় তিন মাস ধরে তাদের আটকে রাখা হয়েছিল। তাদের দিয়ে দেহ ব্যবসা করিয়ে টাকা উপার্জন করেছেন আটক তিনজন। তারা কয়েকবার পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন। তবে তাদের লোকজন দিনরাত পাহারায় থাকেন। এ কারণে পালাতে ব্যর্থ হন। এ ঘটনায় আটক তিনজন ও ভবন মালিককে আসামি করে বিকেলে থানায় মানবপাচার আইনে মামলা করা হয়েছে হয়েছে।

সাইফ আমীন/এমএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]