পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে কৃষকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
ফাইল ছবি

বরিশালের মুলাদী উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়নের চরকালেখান গ্রামে পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে হাবিবুর রহমান ওরফে হাবুল সরদার (৫৮) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অবহেলার কারণে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন নিহতের স্বজনরা। বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মৃত হাবুল সরদার ওই গ্রামের আর্শেদ আলী সরদারের ছেলে।

হাবুল সরদারের স্বজনরা জানান, বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হাবুল সরদার বাড়ির পাশে কবরস্থানে ঘাস কাটতে যান। সেখানে পল্লী বিদ্যুতের সরবরাহ লাইনের তার ছিঁড়ে পড়েছিল।

পড়ে থাকা তার সরানোর চেষ্টা করলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে পড়ে থাকেন তিনি। তাকে পড়ে থাকতে দেখে পথচারীরা চিৎকার শুরু করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় মুলাদী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

হাবুল সরদারের স্বজনদের অভিযোগ, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পক্ষ থেকে মঙ্গলবার দফায় দফায় মাইকিং করা হয়। এ সময় সমিতির লোকজন মাইকে জানান বুধবার সকাল ৮টা থেকে ৫টা পর্যন্ত গোটা উপজেলায় বিদ্যুৎ থাকবে না।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৯টার দিকে বিদ্যুৎ সরবারহ বন্ধ করায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের কঠোর শাস্তি দাবি করেন স্বজনরা।

মুলাদী থানার ওসি ফয়েজ উদ্দীন মৃধা বলেন, এ ঘটনায় মুলাদী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। হাবুল সরদারের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মুলাদী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) আনন্দ কুমার জানান, সরবরাহ লাইনের তার ছিঁড়ে থাকার কথা কেউ সমিতিকে জানায়নি। সরবরাহ লাইনের মেরামতের কাজ শুরু করতে কিছুটা দেরি হয়।

এ কারণে মাইকিংয়ে প্রচার করা সময়মতো সরবরাহ লাইন বন্ধ করা হয়নি। তারপরও বিদ্যুৎ সরবরাহ থাকুক বা না থাকুক বিদ্যুতের তার স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকা উচিৎ ছিল। সাধারণ মানুষকে বিদ্যুতের তার স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকার জন্য বহুবার মাইকিং করে সতর্ক করা হয়েছে।

সাইফ আমীন/এএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]