পঞ্চগড় থেকে শিলিগুড়ি যাবে ট্রেন, নেপাল-ভুটানেও হবে যোগাযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পঞ্চগড়
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০২০
পঞ্চগড়-রাজশাহী রুটে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস আন্তঃনগর ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী সুজন

রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের মধ্যে ট্রেন সার্ভিস চালুর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ব্যবস্থা চালুর ক্ষেত্রে পঞ্চগড় থেকে ভারতের শিলিগুড়ি পর্যন্ত ট্রেন সার্ভিস চালুর প্রক্রিয়া চলছে। ভবিষ্যতে বাংলাবান্ধার সঙ্গে ভারত-নেপাল, ভুটান ও বাংলাদেশের মধ্যে রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা হবে। ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থার পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যও সম্প্রসারিত হবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে পঞ্চগড় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশন থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে পঞ্চগড়-রাজশাহী রুটে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস নামে আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

jagonews24

রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মজাহারুল হক প্রধান, রেল সচিব সেলিম রেজা, জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত বক্তব্য দেন।

রেলমন্ত্রী সুজন বলেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর রেলপথকে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। রেলসেবা জনগণের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে কাজ শুরু করেছে সরকার। পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ও দিনাজপুরের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস আন্তঃনগড় ট্রেনটি পঞ্চগড় থেকে রাজশাহী পর্যন্ত চালু করা হলো। আগামী ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ও ভারতের চিলাহাটি-হলদিবাড়ি ট্রেন চলাচল চালু হবে। দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী এটির উদ্বোধন করবেন।

jagonews24

পঞ্চগড় রেলওয়ে সূত্র জানায়, প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টায় ‘বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস’ পঞ্চগড় থেকে রাজশাহীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। ৯ ঘণ্টা পর বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজশাহী পৌঁছবে।

রাত ৯টা ১৫ মিনিটে রাজশাহী থেকে পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে ভোর ৫টা ১০ মিনিটে আবার পঞ্চগড়ে পৌঁছাবে। রাজশাহী থেকে প্রতি শুক্রবার এবং পঞ্চগড় থেকে প্রতি শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি হিসেবে চলাচল বন্ধ থাকবে।

jagonews24

‘বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস’ পঞ্চগড়, কিসমত, রুহিয়া, ঠাকুরগাঁও, শিবগঞ্জ, পীরগঞ্জ, সেতাবগঞ্জ, দিনাজপুর, চিরিরবন্দর, পার্বতীপুর, ফুলবাড়ি, বিরামপুর, হিলি, পাঁচবিবি, জয়পুরহাট, আক্কেলপুর, সান্তাহার, আহসানগঞ্জ, মাধনগর, নাটোর, আব্দুলপুরসহ ২১টি স্টেশনে থামবে ট্রেন।

একইভাবে ফিরতি পথে এসব স্টেশনে যাত্রা বিরতি করবে। সুলভ শ্রেণির ভাড়া ১৭০ টাকা, শোভন ২৮০ টাকা, শোভন চেয়ার ৩৩৫ টাকা, প্রথম শ্রেণির ৪৪৫ টাকা, প্রথম শ্রেণির বাথ ৬৬৫ টাকা, সিগ্ধা ৫৫৫ টাকা (ভ্যাট ছাড়া), এসি ৬৬৫ টাকা (ভ্যাট ছাড়া), এসি বার্থ ৯৯৫ টাকা (ভ্যাট ও বেডিং চার্জ ছাড়া) নির্ধারণ করা হয়েছে। খ শ্রেণির এই ট্রেনে ৫০৮ জন যাত্রী পরিবহন করতে পারবে।

সফিকুল আলম/এএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]