রায়হানের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগকারী সাইদুর শেখ রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৫:০১ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০২০
নিহত রায়হান আহমদ

সিলেট নগরের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগকারী যুবক সাইদুর শেখকে রায়হান হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

রোববার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে দুপুরে কারাগার থেকে সাইদুর শেখকে কড়া নিরাপত্তায় আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন জানায় পিবিআই। পরে শুনানি শেষে তার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

সিলেট মহানগর পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) অমূল্য ভূষণ চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ২৫ অক্টোবর সাইদুর শেখকে সিলেট পিবিআই অফিসে ডেকে নিয়ে আটক করা হয়। এরপর তাকে রায়হান হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় পিবিআই। আটকের ২০ দিনের মাথায় এবার রায়হান হত্যা মামলায় সাইদুরকে গ্রেফতার দেখিয়ে তিনদিনের রিমান্ডে নিল পিবিআই।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ অক্টোবর মধ্যরাতে রাতে সাইদুর শেখ বন্দরবাজার এলাকার একটি রেস্টুরেন্টে থাকা কয়েকজন পুলিশ সদস্যকে জানান- তিনি কাষ্টঘর এলাকায় ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন। তার অভিযোগ পেয়ে রাত আড়াইটার দিকে কাষ্টঘর থেকে রায়হানকে তুলে নিয়ে আসে পুলিশ। এরপর ফাঁড়িতে তাকে নির্মমভাবে নির্যাতন করেন থানার ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ অপর পুলিশ সদস্যরা। পরদিন সকালে রায়হান মারা যান।

এদিকে গত ২ নভেম্বর সাইদুর শেখের বিরুদ্ধে সৌদি রিয়াল কম দামে বিক্রির কথা বলে প্রতারণা করার অভিযোগ এনে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন প্রাইভেটকারচালক সিলেট নগরের লন্ডনি রোডের বাসিন্দা আফজাল হোসেন আলাল। সাইদুর শেখ নগরের মিরের ময়দান এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন।

এছাড়া গত ৯ নভেম্বর সকালে আলোচিত রায়হান হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাময়িক বরখাস্ত এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ ইউনিয়নের ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেফতারের কথা জানায় জেলা পুলিশ। সন্ধ্যায় কঠোর নিরাপত্তায় তাকে কানাইঘাট থেকে সিলেট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। পরে সন্ধ্যায় নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন।

পরে রাত পৌনে ৮টার দিকে আকবরকে পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরদিন আদালতের মাধ্যমে তাকে সাতদিনের রিমান্ডে নেয় মামলার তদন্ত সংস্থা পিবিআই। বর্তমানে আকবর রিমান্ডে রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর সকালে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান নগরের আখালিয়ার নেহারিপাড়া এলাকার বাসিন্দা রায়হান আহমদ। রায়হানের পরিবারের অভিযোগ, ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে মাত্র ১০ হাজার টাকার জন্য রাতভর নির্যাতন করে রায়হানকে হত্যা করেছে পুলিশ।

ছামির মাহমুদ/আরএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]