আর কত মানববন্ধন করলে আমাদের মা-বোনরা খুন হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৩:৪১ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২০

সিলেটের কাজীটুলা এলাকায় নববধূ সৈয়দা তামান্না বেগম হত্যার প্রতিবাদে গোলাপগঞ্জে সর্বস্তরের নাগরিকবৃন্দের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার পৌরশহর চৌমুহনীতে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। সমাজসেবী মুন্না চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক ফাহিম আহমদের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- গোলাপগঞ্জ মাইক্রোবাস শাখার সভাপতি লায়েক আহমদ, সিএনজিচালিত অটোরিকশা সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাহেল আহমদ তালুকদার, গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেস ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ ও স্বেচ্ছাসেবক পাঠশালার সভাপতি রুবেল আহমদ।

পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন- নিহত তামান্না বেগমের বড় বোন সৈয়দা পান্না বেগম, খালোতা ভাই ইকবাল আহমদ।

এতে উপস্থিত ছিলেন- নিহতের বড় ভাই সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, বোন সৈয়দা ঝরনা বেগম, সৈয়দা সিমা বেগম, চাচা সৈয়দ মুজিব আলী, দুলাভাই সুহেল মিয়া ও ভাগনি তানজিনা আক্তার।

মানববন্ধনে নিহত তামান্না বেগমের বড় বোন সৈয়দা পান্না বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, সুখের আশায় বোনকে মামুনের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছিলাম। কিন্তু আমার বোনকে তার স্বামী আল মামুন যৌতুকের কারণে হত্যা করেছে। এর সঙ্গে জড়িত মেঘনা লাইফ ইনস্যুরেন্সে কর্মরত শাহনাজ পারভীনসহ সবাইকে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়ার জন্য আমি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ করছি।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সিলেটর ইতিহাসে একের পর এক ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটছে। আমরা আর কত মানববন্ধন করব। আর কত মানববন্ধন করলে আমাদের মা-বোনরা খুন হবে না। এ ধরনের জঘন্যতম অপরাধ যাতে আর না হয় সেজন্য তামান্না হত্যায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

ছামির মাহমুদ/এএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]