বরিশালে বিএনপি নেতার বাসভবনে দফায় দফায় হামলা, ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৬:৪০ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২১

পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং সাবেক সংসদ সদস্য এম জহির উদ্দিন স্বপনের বরিশাল নগরীর বাসভবনে দফায় দফায় হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিএনপি নেতার অভিযোগ, হামলায় গৌরনদী বিএনপি ও ছাত্রদলের চার নেতা আহত হয়েছেন। এছাড়া বাসার টেবিল-চেয়ার ও আসবাব ভাঙচুর করা হয়েছে।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) দুপুর ১টা থেকে ২টার মধ্যে জহির উদ্দিন স্বপনের নগরীর ভাটিখানার প্রথম গলির বাসভবনে দুই দফায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় আহতরা হলেন- গৌরনদী বিএনপির শামসুল আলম, মোয়াজ্জেম হোসেন এবং ছাত্রদল নেতা হাফিজুল ইসলাম ও তুহিন।

jagonews24

জহির উদ্দিন স্বপন বলেন, শোকসভায় অংশ নিতে তিনি শনিবার (১৬ জানুয়ারি) ঢাকা থেকে বরিশালে আসেন। এ খবর শুনে রোববার বেলা ১১টার দিকে তার বাসায় আসেন গৌরনদী পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী জহির সাজ্জাদ হান্নানসহ গৌরনদী বিএনপি ও ছাত্রদলের শতাধিক নেতাকর্মী। এরপর বাসভবনে বসে তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন। হঠাৎ দুপুর ১টার দিকে ১০-১২টি মোটরসাইকেলে করে গৌরনদী পৌর নির্বাচনের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর ২০-২৫ জন কর্মী-সমর্থক বাসভবনে প্রবেশ করে চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেন।

এ ঘটনার ঘণ্টাখানেক পরে ফের তারা হামলা চালান। এসময় তাদের কাছে রামদা ও ধারালো অস্ত্র ছিল। হমলাকারীরা বিএনপি ও ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মারধর করেন।

তারা যাওয়ার আগে গৌরনদী পৌর নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মো. ফরহাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ছিনিয়ে নেন। তাছাড়া হামলাকারীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের তিনটি স্মার্টফোন ছিনিয়ে নিয়ে যান।

jagonews24

কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা আরও অভিযোগ করেন, গত সংসদ নির্বাচনে প্রার্থিতা করায় তিনি তার নিজ এলাকা গৌরনদীতে যেতে পারছেন না। সেখানে গেলে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা হামলা করছেন। এ অবস্থার কারণে তিনি বরিশাল নগরীর বাসায় গৌরনদী বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখানেও হামলা করা হলো। বিষয়টি নিন্দনীয়।

জহির উদ্দিন স্বপন বলেন, ‘গৌরনদী পৌর নির্বাচনে বিএনপিকে দূরে রাখতে সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য চালাচ্ছে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ভোট ডাকাতির নীলনকশা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করছে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা।’

বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিমুল করিম জানান, ঝামেলার খবর শুনে জহির উদ্দিন স্বপনের বাসায় পুলিশ গিয়েছিল। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে স্বপনের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করা হয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গৌরনদী পৌরসভা নির্বাচন আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র হারিছুর রহমান হারিছ ও বিএনপির প্রার্থী জহির সাজ্জাদ হান্নান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সাইফ আমীন/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]