বাকপ্রতিবন্ধী শ্যালিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় কারাগারে দুলাভাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০২:২৪ এএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বাকপ্রতিবন্ধী শ্যালিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় দুলাভাই আলামিনকে (৩০) কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আলামিন উপজেলার মগটুলা ইউনিয়নের দক্ষিণ নাউড়ি গ্রামের মৃত মরছব আলীর ছেলে। তাকে গত শনিবার (২৩ জানুয়ারি) দিবাগত মধ্যরাতে ঢাকার হাতিরঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পরে রোববার (২৪ জানুয়ারি) আলামিনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রওশন আলী জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‌‘আলামিন ময়মনসিংহ চার নম্বর আমলী আদালতের বিচারক মাহবুবা আক্তারের আদালতে প্রতিবন্ধী শ্যালিকাকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘আলামিন পেশায় একজন ট্রলিচালক। প্রায় ছয় বছর আগে পাশের গ্রামের ওই বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীর বড় বোনকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময় যৌতুক ও অন্যান্য কারণে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন। নির্যাতন সইতে না পেরে এক বছরের সন্তান নিয়ে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে প্রথমে বাবার বাড়িতে চলে যান তিনি। পরে সেখান থেকে তিনি ঢাকায় চলে যান।’

তিনি আরও বলেন, ‌‘স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়ে এক পর্যায়ে শ্যালিকাকে উত্ত্যক্ত করতে শুরু করেন আলামিন। পরিবারের সদস্যরা বাধা দিলেও তিনি বিরত থাকেননি। ঘটনার দিন গত ৯ জানুয়ারি সন্ধ্যার পর ওই বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে বিয়ের আশ্বাসে বাড়িতে এনে ধর্ষণ করেন আলামিন।’

পরদির (১০ জানুয়ারি) রাতে বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আলামিনকে আসামি করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় মামলা করেন।

মঞ্জুরুল ইসলাম/ইএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]