কম্বল পেলেন রাজশাহীর সেই ভিক্ষুকরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৯:৩৫ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২১

জাগো নিউজে সংবাদ প্রকাশের পর কম্বল পেয়েছেন রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের অর্ধশত গৃহহীন ফকির-মিসকিন। ‘কম্বল ছাড়াই রাত কাটছে স্টেশনের অর্ধশতাধিক ভিক্ষুক-গৃহহীনের’ শিরোনামে ২৩ জানুয়ারি প্রতিবেদন প্রকাশ করে জাগো নিউজ। সেই প্রতিবেদনের সূত্র ধরে রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মুফতি মাহমুদ রনি ভিক্ষুক-গৃহহীনদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে কম্বল ছাড়া রাত কাটানো অর্ধশতাধিক ভিক্ষুক-গৃহহীনের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন তিনি।

jagonews24

মুফতি মাহমুদ রনি বলেন, ‘কিছুদিন আগেও আমি ঢাকা থেকে আসার সময় ওই অসহায় মানুষদের সারিবদ্ধ হয়ে প্লাস্টিকের চট ও পুরোনো জীর্ণশীর্ণ কাপড় জড়িয়ে শুয়ে থাকতে দেখেছি। দৃশ্যটি হৃদয়স্পর্শী। আবার ওই একই দৃশ্য জাগো নিউজের প্রতিবেদনেও দেখলাম। সেই প্রতিবেদনে কয়েকজনের হৃদয়বিদারক ঘটনা জানার পর মনে দাগ টানে। বিবেকের তাড়নায় আমি ও আমার প্রকৌশলী বন্ধুরা সহযোগিতায় কিছু কম্বল নিয়ে এগিয়ে এসেছি তাদের পাশে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি ও আমার বন্ধুরা এর আগেও বিভিন্ন গ্রামগঞ্জে শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। এবারও তার ব্যতিক্রম কিছু করিনি। আমরা বিশ্বাস করি দানে বরকত বাড়ে, কমে না। সমাজের বিত্তবানদের উচিত রাজশাহীর হাড় কাঁপানো শীতে এসব গৃহহীন ভিক্ষুকের পাশে এসে দাঁড়ানো।’

jagonews24

কম্বল পেয়ে বৃদ্ধা রিতা আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, ‘আল্লাহ তোমাদের হাজার বছর বাঁচিয়ে রাখুন বাপ। তোমাদের মতন দরদিরা আছে বলেই আমরা বেঁচে আছি বাবা। আল্লাহ তোমাদের ভালো করুক।’

কম্বল বিতরণকালে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রকৌশলী মো. আসাদুল হক, প্রকৌশলী মোস্তফা তারিকুল আনাম, রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের প্রধান বুকিং সহকারী মো. আব্দুল মোমিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রাসিব, দৈনিক সুপ্রভাত রাজশাহীর সম্পাদক প্রকৌশলী মো. রায়হান ইসলাম প্রমুখ।

ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]