স্বামীর মৃত্যুর খবর এখনো জানেন না ডা. অন্তরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

স্বামীর মৃত্যুর খবর এখনো জানেন না ডা. শারমিন আক্তার অন্তরা (২৯)। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) স্বামী ডা. আল মাহমুদ সাদ ইমরান খানকে নিয়ে ৪২তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষায় অংশ নিতে রাজধানী ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন তিনি। পথে দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে  প্রাণ হারান ডা. আল মাহমুদ সাদ ইমরান খানসহ আটজন। গুরুতর আহত হন ডা. অন্তরাসহ ১৮ জন।

ডা. শারমিন আক্তার অন্তরা বর্তমানে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টেসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিউ) রয়েছেন।

এদিকে সিলেটে ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনার কথা মনে হলে আঁতকে ওঠেন আহতরা। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহনেওয়াজ ও শামীমসহ আহতরা দুঃসহ সেই স্মৃতির কথা ভুলতেই পারছেন না বলে জাানান।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) এ দুর্ঘটনায় আহত মোট ১৮ জন হাসপাতালে ভর্তি হলেও দুই নারীকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। তারা দুজনই ঢাকার বাসিন্দা ছিলেন এবং তাদের কোমরসহ বিভিন্ন জায়গায় একাধিক ভাঙা ও গুরুতর জখম আছে।’

ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘যারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাদের প্রায় সবাই মোটামুটি স্বাভাবিক আছেন। তুলনামূলক ঝুঁকিমুক্ত। তবে তিনজনের হাত পায়ের বিভিন্ন জায়গায় একাধিক ভাঙা থাকায় অবস্থা গুরুতর বিবেচনা করা হচ্ছে। অন্যদের ছোটখাটো জখম আছে।’

দুটি বাসে সংঘর্ষের ঘটনায় আটজন নিহত হওয়ার ঘটনায় একটি মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম। এসআই লোকমান হোসেন বাদী হয়ে দুর্ঘটনাকবলিত দুই বাসের চালকদের আসামি করে মামলাটি করেন। সেই সাথে ক্ষতিপূরণ হিসেবে একটি আর্থিক পরিমাণও মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

jagonews24

ওসি বলেন, ‘উভয় বাসের চালক নিহত হয়েছেন। তবে এখন তদন্ত করে দেখতে হবে যারা গাড়ি চালাচ্ছিল তারা আসলেই চালক নাকি অন্য কেউ।’

এদিকে দক্ষিণ সুরমার রশিদপুর এলাকায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহতদের এমজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপতালে খোঁজ-খবর নিতে ছুটে যান সিলেট-২ (বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর) আসনের সংসদ সদস্য ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য মোকাব্বির খান। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে তিনি তাদের খোঁজখবর নেন এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে আহত ও নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এর আগে গত শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভোরে দক্ষিণ সুরমার রশিদপুর নামক স্থানে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লন্ডন এক্সপ্রেস (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৫-৩১৭৬) ও সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া ঢাকামুখী এনা পরিবহনের (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৪-৭৩১১) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় দুই বাসের চালক ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের একজন চিকিৎসকসহ এখন পর্যন্ত আটজন নিহত হয়েছেন।

ছামির মাহমুদ/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]