সালিশে ধর্ষণচেষ্টার বিচার না পাওয়ায় থানায় অভিযোগ, কিশোর আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ এএম, ১৭ এপ্রিল ২০২১
প্রতীকী ছবি

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাজুবাঘা ইউনিয়নের একটি গ্রামে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে এক কিশোরের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে বিষয়টি সালিশে মীমাংসা না হওয়ায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে কিশোরসহ পাঁচজনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

একইদিন রাতে এ ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোরকে বাড়ি থেকে আটক করে বাঘা থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বাঘা উপজেলার উক্ত গ্রামের অভিযুক্ত কিশোর একই এলাকার এক স্কুলছাত্রীকে প্রায় উত্ত্যক্ত করতো। প্রস্তাবে রাজি না হলে গত ১০ এপ্রিল রাতে ওই ছাত্রীর বাড়িতে যায় কিশোর। বাড়িতে তাকে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এসময় ছাত্রীর চিৎকারে তার মা ও প্রতিবেশীরা ছুটে এসে কিশোরকে হাতেনাতে ধরে ঘরে আটকে রাখে। পরে তার বাবা-মা ও আত্মীয়স্বজন এসে তাকে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ১১ এপ্রিল এলাকায় একটি সালিশের আয়োজন করা হয়। সালিশে মীমাংসা না হওয়ায় বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত কিশোরের পরিবার জানায়, কিশোরকে কৌশলে ডেকে নিয়ে ছাত্রীর বাড়িতে আটকে রাখা হয়। সালিশের মাধ্যমে বিষয়টির সমাধান করতে চেয়েছি। কিন্তু সালিশে ছাত্রীর পরিবার অযৌক্তিক ও অমানবিক দাবি করায় সমাধান করা সম্ভব হয়নি।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আব্দুল বারী বলেন, স্কুলছাত্রীর বাবার অভিযোগ সাপেক্ষে একজন আসামিকে আটক করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

ফয়সাল আহমেদ/এসএমএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]