নিখোঁজের ৫ দিন পর অটোরিকশা চালকের লাশ মিলল মর্গে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ১২:৪৭ এএম, ১৮ এপ্রিল ২০২১

নিখোঁজ হওয়ার পাঁচ দিন পর ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় শাহিনুর ইসলাম (৫০) নামে এক অটোরিকশা চালক মরদেহ মর্গ থেকে শনাক্ত করেছেন স্বজনরা।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে মরদেহটি শনাক্ত করেন স্বজনরা।

শাহিনুরের বাড়ি উপজেলার নন্দীগ্রামে। বাবার নাম মৃত আব্দুর রশিদ খান। মাসখানেক আগে অটোরিকশা কিনে নিজেই চালাতেন।

মরদেহ শনাক্তের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হালিম সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, মরদেহ মর্গে শনাক্ত করার পর ময়নাতদন্ত করে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে, এ ঘটনায় এখনো কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে দায়িত্বরত উপপরিদর্শক (এসআই) কাশেম বলেন, বিষক্রিয়ায় শাহিনুরের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। তবে, তার শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না।

তিনি বলেন, গত ১২ এপ্রিল বিকেলে কয়েকজন ব্যক্তি অচেতন অবস্থায় শাহিনুরকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বারান্দায় রেখে পালিয়ে যায়। পরদিন সকালে তার মৃত্যু হয়। পরে সেখান থেকে মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়। শনিবার দুপুরে নিহতের পরিচয় নিশ্চিত হলে ময়নাতদন্ত করে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ওসি হালিম সিদ্দিকী আরও বলেন, গত ১২ এপ্রিল সকালে শাহিনুর অটোরিকশা নিয়ে বের হন। এ সময় তার সঙ্গে ২০ হাজার টাকাও ছিল।

ওইদিন গভীর রাত পর্যন্ত বাড়িতে না ফেরায় পরদিন এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার পরিবারের লোকজন। খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ের জানতে পারেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে একটি অজ্ঞাত লাশ রয়েছে। পরে সেখানে গিয়ে শাহিনুরের মরদেহ শনাক্ত করেন তার স্বজনরা।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এসএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]