জেলেদের চাল যাচ্ছিল চেয়ারম্যানের লোকদের ঘরে, প্রতিবাদ করায় হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৭:১২ পিএম, ০৪ মে ২০২১

বরিশালের মুলাদী উপজেলায় সরকারি চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় দরিদ্র জেলেদের ওপর হামলা চলানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।

উপজেলার চরকালেখান ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. মোহসিন উদ্দিন খানের নির্দেশে তার লোকজন হামলা চালায় বলে জেলেরা অভিযোগ করেন।

মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার চরকালেখান নোমরহাট বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে শুক্কুর সরদার, জেলে জাকির হোসেন ও জামাল হোসেনের নাম জানা গেছে। তাদের মধ্যে শুক্কুর সরদারকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

চরকালেখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক জানে আলম মৃধাসহ একাধিক ব্যক্তি জানান, চরকালেখান ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোহসিন উদ্দিন খান সোমবার (৩ মে) সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলেদের মাঝে তিন মাসের চাল বিতরণ করেন। ওই সময় তিনি প্রকৃত কার্ডধারী জেলেদের না দিয়ে তার নিজস্ব লোকজনদের মাঝে চাল বিতরণ করেন। ফলে প্রকৃত জেলেরা তাদের প্রাপ্য চাল থেকে বঞ্চিত হন। জেলে কার্ড ছাড়া চেয়ারম্যানের অনুসারী জাহাঙ্গীর হোসেন চাল নিয়ে বাড়িতে রওনা হলে কার্ডধারী বঞ্চিত জেলেরা তাকে ধরে ফেলেন। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে গেলে তিনি তাদের কথায় কর্ণপাত না করে তার অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বের দেন। পরে বিক্ষুদ্ধ জেলে ও স্থানীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদে চেয়ারম্যান মোহসিন উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

স্থানীয় যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম মিলন মোল্লা ও কয়েকজন কার্ডধারী জেলে জানান, মিছিল শেষে বেলা ১১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয়া কয়েকজন জেলে চরকালেখান নোমরহাট বাজারে যান। এসময় চেয়ারম্যান অনুসারী আক্তার হাওলাদার, আক্তার সরদার, রুস্তুম সরদারসহ ১২-১৫ জন লোক তাদের ওপর হামলা চালান। এসময় পথচারী শুক্কুর সরদার, জেলে জাকির হোসেন, জামাল হোসেনসহ কমপক্ষে পাঁচজন আহত হন।

অভিযোগ প্রসঙ্গে চরকালেখান ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোহসিন উদ্দিন খান বলেন, ‘জেলে কার্ড ছাড়া জাহাঙ্গীর হোসেন নামের এক শ্রমিককে এক বস্তা চাল দেয়া হয়েছিল। এতে দলীয় প্রতিপক্ষরা সুযোগ পেয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে তারা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন। তারা জেলেদের দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করিয়েছেন। তবে আমার কোনো লোক কারো ওপর হামলা করেনি। হামলার নাটক সাজানো হয়েছে।’

মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাকসুদুর রহমান জানান, চরকালেখান নোমরহাট বাজারে জেলেদের ওপর হামলার ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাইফ আমীন/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]