রংপুরে পাঁচদিনে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করল ট্রাফিক পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ১০:২৬ পিএম, ০৫ মে ২০২১

রংপুরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে চলমান বিধিনিষেধ অমান্য করে পরিবহন চলাচল করায় পাঁচদিনেই প্রায় ৩০ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ১ মে থেকে ৫ মে (বুধবার) পর্যন্ত রংপুর নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে এসব জরিমানা আদায় করা হয়।

রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ ও মেট্রোপলিটন থানার সহযোগিতায় এসব চেকপোস্ট পরিচালনা করা হচ্ছে।

মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধে এবং আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে অনেকে আইন অমান্য করে মোটরসাইকেল, অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, মিনিবাস, পিকআপ, ট্রাকসহ বিভিন্ন পরিবহনে চলাচল করছেন। এসব পরিবহনের লাইসেন্স, ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ত্রুটি থাকায় সড়ক পরিবহন আইন মোতাবেক মামলা দিয়ে জরিমানা আদায় করা হয়।

jagonews24.com

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আব্দুল আলীম মাহমুদের নির্দেশে মহানগরের ছয়টি থানার সহযোগিতায় মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে ১৬টি চেকপোস্ট বসিয়ে গত পাঁচদিনে প্রায় ৮০০টি মামলা দায়ের করে। এছাড়া আটক করা হয়েছে ৬৫টি যান। এসব মামলায় জরিমানা করা হয়েছে প্রায় ৩০ লাখ টাকা।

আইন অমান্য করে অনেকেই বিভিন্ন সরকারি দফতরের স্টিকার লাগিয়ে ও অ্যাম্বুলেন্সে যাত্রী পরিবহন করছেন। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতেই তারা এমনটি করছেন। এছাড়া নিয়মনীতি অমান্য করায় এসব জরিমানা ও মামলা দেয়া হয়।

jagonews24.com

এ বিষয়ে মেট্রোপলিটন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) দেলোয়ার হোসেন বলেন, বিধিনিষেধ অমান্য করে পরিবহন চলাচল করায় এসব জরিমানা করা হয়েছে। আসন্ন ঈদ উপলক্ষে এবং চলমান লকডাউনে যাতে কেউ নিয়ম অমান্য করতে না পারে সে জন্য ট্রাফিক পুলিশ সজাগ রয়েছে। এ অভিযান চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি।

জীতু কবির/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]