ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৬

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ১০:৫০ পিএম, ০৯ জুন ২০২১ | আপডেট: ১০:৫১ পিএম, ০৯ জুন ২০২১

ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন। বুধবার (৯ জুন) সদর উপজেলার রশিদপুর এবং মুক্তাগাছার সত্রাশিয়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার আব্দুল আজিজের ছেলে বাবলু মিয়া (৪২), নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার করিম মিয়ার ছেলে রিপন মিয়া (৩০), রিপনের ছেলে আবিদ হাসান (১০), ময়মনসিংহ সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নের উজানঘাগড়া এলাকার জহিরুল ইসলামের স্ত্রী রিতা আক্তার (২১), একই গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে আমিনুল ইসলাম (৩৫) ও আব্দুল মোতালেবের ছেলে তানভীর (৮)।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন বলেন, আজ বিকেল তিনটার দিকে শ্যামগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ময়মনসিংহগামী একটি সিএনজি শম্ভুগঞ্জ এলাকার রশিদপুর নামক স্থানে আসলে নেত্রকোনাগামী একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই বাবলু ও রিপনের মৃত্যু হয়। এ সময় নারী ও শিশুসহ আহত হন তিনজন।

jagonews24

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। সেখানে রাত সাড়ে আটটার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিপনের ছেলে আবিদ হাসানের মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে মুক্তাগাছা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল আকন্দ বলেন, আজ দুপুরে বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা ময়মনসিংহগামী একটি বাস সত্রাশিয়া বাজার এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে।

jagonews24

এতে অটোরিকশার পাঁচ যাত্রী আহত হলে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক নারী ও শিশুসহ তিনজন মারা যান। এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করা সম্ভব হলেও চালক পালিয়ে গেছেন বলেও জানান তিনি।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]