রাজশাহীতে চুরি হওয়া মোবাইল চট্টগ্রামে উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ১১:৩০ পিএম, ১০ জুন ২০২১

রাজশাহীর থিম ওমর প্লাজার অপ্পো ব্র্যান্ড সপ শো-রুম থেকে অভিনব পদ্ধতিতে চুরি হওয়া দুটি মোবাইল ফোন চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় চুরির দায়ে অভিযুক্ত দুইজনকে আটকও করেছে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ।

গত বুধবার (৯ জুন) সকালে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানার বড় উঠান সাতঘরপাড়া থেকে কর্ণফুলী থানা পুলিশের সহায়তায় আসামি মো. রায়হান উদ্দিন ও মো. ইমরান খাঁন রাজুকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের মুখপাত্র ও আরএমপির উপপুলিশ কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস।

তিনি বলেন, গত ৯ মার্চ ২০২০ রাত সাড়ে ৯টার দিকে গৌরহাঙ্গা থিম ওমর প্লাজার ষষ্ঠ তলায় অপ্পোর শো-রুমের কর্মচারী মো. রকি শো-রুম বন্ধ করে চলে যান। পরদিন ১০ মার্চ সকাল ১০টার দিকে রকি শো-রুমে এসে দেখেন শো-রুমে লাগানো তালা কাটা অবস্থায় পড়ে আছে। সেই সঙ্গে শো-রুমের ভেতরে থাকা ৪৮টি মোবাইল ফোন সেট ও ক্যাশে থাকা নগদ দুই লাখ টাকা চুরি গেছে। পরবর্তীতে দোকান মালিক নুরুন নবী শাহ বোয়ালিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

তিনি বলেন, থিম ওমর প্লাজার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করা হয়। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, দোকান বন্ধ করার দুই মিনিট পর পাঁচ-ছয়জন কিশোর অভিনব কায়দায় মাত্র দুই-তিন মিনিটের মধ্যে তালা ভেঙে দোকান হতে মোবাইল ফোন ও নগদ অর্থ চুরি করে নির্বিঘ্নে মার্কেট ছেড়ে চলে যায়। চুরির ঘটনার পূর্বে তারা উক্ত প্লাজার ক্যাফেতে অবস্থান করছিল।

তিনি আরও জানান, ঘটনাটি আরএমপি কমিশনার জানার পরই আসামিদের ধরার নির্দেশ দেন। পরে সাইবার ক্রাইম ইউনিটের ইনচার্জ উৎপল কুমার চৌধুরীর দীর্ঘ প্রচেষ্টায় তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় আসামিদের অবস্থান শনাক্ত করেন। তার দেয়া তথ্য ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এসআই মো. গোলাম মোস্তফা, এএসআই মো. নাজমুল হকের সমন্বয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানার একটি টিম গত ৯ জুন সকাল ৭টায় চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানার বড় উঠান সাতঘরপাড়া হতে কর্ণফুলী থানা পুলিশের সহায়তায় আসামি মো. রায়হান উদ্দিন ও মো. ইমরান খাঁন রাজুকে আটক করে। এ সময় তাদের কাছে থেকে দুটি অপ্পো মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। পরবর্তীতে আসামিদের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন পর্যালোচনা করে ২০২০ সালের ২২ মার্চ বিভিন্ন মডেলের ১১টি মোবাইল ফোন এবং ২০২০ সালের ২৩ মার্চ বিভিন্ন মডেলের সাতটি মোবাইল ফোন বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা রেজিস্ট্রারের সংরক্ষিত ছবি পাওয়া যায়। সেই ছবি দেখিয়ে তারা চুরির মোবাইলগুলো বিক্রি করেছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

পুলিশ রেকর্ডে জানা গেছে, গ্রেফতার আসামি মো. রায়হান উদ্দিনের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগরের কাফরুল থানায় একইভাবে অভিনব কায়দায় চুরির মামলা রয়েছে। সেখানেও তিনি ৮০টি মোবাইল চুরি করেছিলেন বলে জানা যায়। এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে জানা গেছে- তারা কিশোর গ্যাংয়ের সক্রিয় সদস্য।

আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুর ১টার দিকে আটক আসামিদের বিরুদ্ধে
মোবাইল চুরির অভিযোগে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। যেহেতু তারা কিশোর গ্যাংয়ের একটি সংঘবদ্ধ চক্র। সুতরাং বাকিদেরও আটকে পুলিশ তৎপর রয়েছে। আশা করছি- বাকিদেরকেও চুরি যাওয়া মোবাইলসহ উদ্ধার করা সম্ভব হবে।’

ফয়সাল আহমেদ/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]