অস্ত্রোপচারকালে নবজাতক-প্রসূতির মৃত্যু, চিকিৎসক-নার্স পলাতক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০১:৩৫ এএম, ১৩ জুন ২০২১ | আপডেট: ০১:৪৪ এএম, ১৩ জুন ২০২১

রাজশাহীর লক্ষ্মীপুরে অবস্থিত মাইক্রোপ্যাথ ক্লিনিকে সিজারের সময় নবজাতকসহ প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১১ জুন) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এর পর ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক, নার্সসহ মালিক পক্ষের লোকজন পালিয়ে গেছেন।

মৃত প্রসূতি সুখী খাতুনের স্বামী স্বপন ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে তার স্ত্রীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে মাইক্রোপ্যাথ ক্লিনিকের কতিপয় দালাল করোনার কারণে হাসপাতালে নবজাতক ও প্রসূতির সমস্যা হতে পারে, এমন শঙ্কার কথা বলে মাইক্রোপ্যাথ ক্লিনিকে নিয়ে যায়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সুখীর সিজার করা হয়। সিজার করেন চিকিৎসক শারমিন সুলতানা।

স্বপন ইসলাম অভিযোগ করেন, ভুল সিজারের কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে প্রসূতির মৃত্যু হয়। অযত্ন-অবহেলায় নবজাতকও মারা যায়।

ঘটনার পর চিকিৎসক শারমিন সুলতানা ক্লিনিক ছেড়ে দ্রুত বেরিয়ে যান। একই সঙ্গে ওই ক্লিনিকের মালিকসহ নার্সরাও পালিয়ে যান। পরে ক্লিনিকের ম্যানেজার বিষয়টিকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন।

এদিকে প্রসূতির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রোগীর স্বজনরা ওই ক্লিনিক ঘেরাও করেন।

এ সময় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জানান, রাত (শুক্রবার) ১০টা পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফয়সাল আহমেদ/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]