বরিশালে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৪:৫১ পিএম, ২১ জুন ২০২১

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুই মেম্বার প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ১৫-১৬টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এতে মৌজে আলী মৃধা (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। এ সময় উভয় পক্ষের আরও পাঁচ-ছয়জন আহত হন।

সোমবার (২০ জুন) দুপুর ১২টার দিকে খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ সংঘর্ষ থামাতে ছয় রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

নিহত মৌজে আলী মৃধা কমলাপুর গ্রামের মৃত কাদের মৃধার ছেলে। আহতদের মধ্যে খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) প্রার্থী মন্টু হাওলাদার, মো. ইদ্রিস, মো. ইমরান হাওলাদারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী গৌরনদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রব হাওলাদার বলেন, ‘মোরগ প্রতীকের প্রার্থী ফিরোজ মৃধার কর্মী নয়ন মৃধা কমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রবেশ করে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টা করেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে টিউবওয়েল মার্কার প্রার্থী মন্টু হাওলাদারের লোকজন তাকে ধাওয়া করে। নয়ন মৃধা কেন্দ্রের বাইরে এসে বিষয়টি ফিরোজ মৃধাকে জানায়। এ সময় মন্টু হাওলাদারের লোকজন এসে পড়লে দুই প্রার্থী ও কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।’

তিনি আরও বলেন, ‘একপর্যায়ে এক পক্ষ অপর পক্ষকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করে। এ সময় ১৫-১৬টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা সংঘর্ষ থামাতে এগিয়ে গেলে তাদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। পুলিশ সংঘর্ষ থামাতে ছয় রাউন্ড ফাকা গুলিবর্ষণ করে। এদিকে উভয় পক্ষের ছোড়া বোমা বিস্ফোরিত হয়ে চারদিক ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, ‘মৌজে আলী মৃধাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের চারজন আহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে কয়েকজন পুলিশ সদস্য লাঠিসোটায় আঘাত পেয়েছে। তাদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সংঘর্ষে জড়িত উভয় পক্ষের তিনজনকে আটক করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সংঘর্ষে ঘণ্টাব্যাপী ভোটগ্রহণ স্থগিত ছিল। পরে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।’

সাইফ আমীন/এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]